ব্ল্যাক প্যান্থার: ওয়াকান্ডা ফরেভার – রাজাহীন এক রাজ্যের ঘুরে দাঁড়ানো

সমূহ সম্ভাবনা ছিল প্রথম মুভির আইকনিক, বিশ্ব সমাদৃত লিডকে ছাড়া পরবর্তী মুভি মুখ থুবড়ে পড়ার…

article

ব্ল্যাকফায়ার রেবেলিয়ন: টারগেরিয়্যান হাউজের আরেক গৃহযুদ্ধ | শেষ পর্ব

সেভেন কিংডমস ভাগাভাগি করে নেওয়ার পরিকল্পনা শুনে প্রিন্স ডানক্যান মজা করে বলেছিলেন “এক পেনিতে নয়টা মুকুট বেঁচাকেনা হচ্ছে”। এই ঘটনা থেকেই ব্যান্ড অভ নাইনের সদস্যদের জন্য ‘নাইনপেনি কিংস’ ছদ্মনাম প্রচলিত হয় এবং পঞ্চম ব্ল্যাকফায়ার রেবেলিয়ন পরিচিত হয় ‘ওয়ার অভ দ্যা নাইনপেনি কিংস’ হিসেবে।

article

ব্ল্যাকফায়ার রেবেলিয়ন: টারগেরিয়্যান হাউজের আরেক গৃহযুদ্ধ

‘ব্ল্যাকফায়ার’ ছিল এয়গন দ্যা কনকোয়ারারের তলোয়ার, যে তলোয়ার হাতে তিনি ওয়েস্টরসের সাত রাজ্য জয় করেন। টারগেরিয়্যান হাউজের প্রথা অনুযায়ী আয়রন থ্রোনের উত্তরাধিকারকেই এই তলোয়ার সম্প্রদান করা হয়। তলোয়ার পেয়ে ডেইমন নিজের শেষ নাম ওয়াটার্স থেকে ‘ব্ল্যাকফায়ার’-এ বদলে দেয়। ডেইমন ওয়াটার্স পরিণত হয় ডেইমন ব্ল্যাকফায়ারে! এখান থেকেই এয়গনের কোর্ট দুই দলে ভাগ হওয়া শুরু করে- একদল প্রিন্স ডেইরনের সমর্থক, আরেকদল ডেইমনের

article

আধুনিক হরর জনরা এবং জর্ডান পীল

পরিচালনার জগতে প্রবেশ করার পেছনে পীলের প্রেরণাই ছিল হররের মাধ্যমে বর্তমান সমাজে চলতে থাকা হাজারো অসমতা, অন্যায়-অবিচারের মুখে আয়না তুলে ধরা। আজ পর্যন্ত মুক্তি পাওয়া তিনটি ফিল্মের মাধ্যমে তিনি ঠিক সেই কাজটিই করে চলেছেন। তবে তাঁর ফিল্মগুলো কোনদিক দিয়েই এক স্থানে স্থবির বসে নেই। প্রতিবারই মৌলিক এবং নতুন আইডিয়ার সাথে তাঁর অকৃত্রিম ফিল্মমেকিং স্টাইলের মিশ্রণে উপহার দিয়ে চলেছেন একের পর এক অনন্য এবং গুরুত্বপূর্ণ সিনেমা।”

article

সিনেমার পর্দায় বিশের ঘরে পা রাখার অভিজ্ঞতা

সিনেমায় দেখা বয়ঃসন্ধির গল্পগুলোর একটা অভিন্ন, সর্বজনীন প্রকৃতি থাকলেও বিশের ঘরের অভিজ্ঞতার গল্পগুলো একটু ভিন্ন প্রকৃতির। কারণ এ সময়ের বিকাশ, বিবর্তন প্রত্যেকটা মানুষের জন্য ভিন্ন হয়। এই ভিন্নতার ছাপ পাওয়া যায় বিশের ঘরের অভিজ্ঞতা নিয়ে বানানো প্রতিটি সিনেমায়।

article

২০২২ সালের সেরা পাঁচ স্ট্রিমিং সিরিজ

পরিমাণভিত্তিক মার্কেটেও কিছু সিরিজ অন্যদের চেয়ে আলাদা প্রমাণ করে নিজেকে। গুণমান ঠিক রেখে এসব সিরিজ দর্শকদেরর মনে আলাদা জায়গা দখল করে নেয়। ২০২২ সাল এদিক থেকে প্রচন্ডরকম শুভ একটা বছর সিরিজপ্রেমী দের জন্য। বছরের অর্ধেক যেতে না যেতেই প্রচুর ভালো, কোয়ালিটি সম্পূর্ণ টিভি সিরিজ মুক্তি পেয়েছে। আজ সেরকম পাঁচটি নতুন স্ট্রিমিং সিরিজ নিয়ে কথা বলব যা দর্শকদের মন কেঁড়ে নিয়েছে।  

article

মাল্টিভার্স অব ম্যাডনেস: দর্শক প্রতিক্রিয়ার আদ্যোপান্ত

‘ডক্টর স্ট্রেঞ্জ ইন দ্য মাল্টিভার্স অব ম্যাডনেস’ টাইটেলে ডক্টর স্ট্রেঞ্জের দ্বিতীয় কিস্তির মুভিকে টিজ করা হলো এই মাল্টিভার্স মুভি হিসেবে। গত সপ্তাহে মুক্তি পেল মাল্টিভার্সের সেই মুভি, এবং দর্শকরা গভীরভাবে বিভক্ত।

article

ওয়েস্ট সাইড স্টোরি: স্পিলবার্গের নতুন মাস্টারপিস

স্পিলবার্গ বললেই সবার আগে যে ক্যামেরার কারসাজি চোখে ভাসে সেই কারসাজি পুরোদমেই উপস্থিত ছিল এই মুভিতে। সবচেয়ে মুগ্ধকর ব্যাপারটি হলো পরিচালনা আর ক্যামেরার কাজের দক্ষতায় তিনি এই সিনেমাতে ক্ল্যাসিক, ওল্ড হলিউডের একটা আবহ নিয়ে আসতে পেরেছেন।

article

দ্য লাস্ট ডুয়েল: নারীবিদ্বেষের ভয়াবহতার এক অকুণ্ঠিত আখ্যান

আমরা ফার্স্ট হ্যান্ডে দেখতে পাই সমাজ কীভাবে, কত পর্যায়ে চেষ্টা করে ভিক্টিমদের কণ্ঠরোধ করতে। কীভাবে নারীদের মানুষ হিসেবে না দেখে আনুষ্ঠানিকভাবে কোন পুরুষের সম্পত্তি হিসেবে গণ্য করা হতো। কীভাবে বিচার ব্যবস্থার প্রতিটি ধাপ ভিক্টিমদের বিরুদ্ধে কাজ করে। কীভাবে ধর্মের অপব্যবহার করা হয় ধর্ষক পুরুষদের পক্ষে। একদম তৎকালীন রাজত্ব, আমলাতন্ত্র, ধার্মিক প্রতিষ্ঠান ও বিচারতন্ত্রের গোড়ায় গিয়ে এসব বিষয়কে প্রকাশ করা হয়েছে।

article

End of Articles

No More Articles to Load