একজন টমাস টুখেলের গল্প

প্যারিসে গিয়ে টুখেল বুঝতে পারছিলেন, বিগ ইগো সামলানো একটা চ্যালেঞ্জিং ব্যাপার। খেলোয়াড়দের না খেপিয়ে ভালো সম্পর্ক তৈরি করা এবং নিজে যা চাচ্ছেন তা খেলোয়াড়দের কাছ থেকে আদায় করা – এই দুইয়ের মধ্যে ভারসাম্য ধরে রাখাটাই টুখেলের জন্য বড় এক চ্যালেঞ্জ ছিল। 

article

ইউরো ২০০৪: গ্রিসের শিরোপা জেতার অবিশ্বাস্য আখ্যান

২০০৪ সালকে ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে নাটকীয় বছরগুলোর একটি। পোর্তোর চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়টা ছিল সেই বছরই। তবে সব ছাড়িয়ে ইউরো জিতে চমকে দিয়েছিল গ্রিস। মনে পড়ে সেই অবিশ্বাস্য গ্রিক রূপকথার রাতটা?

article

রবার্ট লেভানডফস্কি: দ্য নাম্বার নাইন

লেভানডফস্কি যেখানেই খেলেছেন, একের পর এক লক্ষ্যভেদ করে গেছেন, গোলের পর গোল করেছেন। তিনি যেন মহাভারতের অর্জুন; লক্ষ্যভেদ যার কাছে মামুলি এক ব্যাপারমাত্র।

article

জশুয়া কিমিখ: বিশ্বের সেরা ‘নাম্বার সিক্স’?

কিমিখ আসলে কঠিন চ্যালেঞ্জ নিতেই পছন্দ করেন। গত দুই বা তিন মৌসুম ধরে কিমিখ ‘পৃথিবীর সেরা নাম্বার সিক্স’ হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করেছেন। কিমিখ এমন একজন খেলোয়াড় যিনি বল, খেলার মাঠের স্পেস এবং ম্যাচের ছন্দ-গতি নিয়ন্ত্রণ করেন। কিন্তু শুধু ফুটবলিং স্কিলই যে তাকে ভিড়ের মধ্যে অনন্য করে তুলেছে, তা নয়। অগ্নিবৎ ব্যক্তিত্ব এবং খেলার মাঠে নিয়ন্ত্রিত আগ্রাসন – এই দুটো জিনিস মিলিয়ে নিজের ভেতর ধারাবাহিকভাবে শিরোপা জেতার ইচ্ছা জিইয়ে রাখা – এরকম ইতিবাচক মানসিকতাও তাকে আর দশজনের থেকে আলাদা করে তোলে। 

article

বেলজিয়ামের আধিপত্য নাকি রাশিয়ার চমক?

একঝাঁক তারকা নিয়ে ইউরোতে খেলতে এসেছে বেলজিয়াম। এবারের ইউরো টুর্নামেন্ট জয়ের জন্য অন্যতম ফেভারিট হিসেবে ভাবা হচ্ছে বেলজিয়ামকে। অন্যদিকে, ২০০৮ সালে আন্দ্রে আরশাভিনের রাশিয়া সেমিফাইনাল খেলে, যেটা এখনও রাশিয়ার ইউরোর সর্বোচ্চ অর্জন। 

article

ইউরো ২০২০: গ্রুপ ‘বি’ ব্যবচ্ছেদ

ইউরোতে অংশগ্রহণকারী ২৪টি দলকে ৬টি গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে। এ পর্বের আলোচনা গ্রুপ বি’র দলগুলো নিয়ে, যেখানে রয়েছে ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, বেলজিয়াম, এবং রাশিয়া। এই গ্রুপের দলগুলোর খেলা হবে কোপেনহেগেনের পার্কেন স্টেডিয়াম ও সেইন্ট পিটার্সবুর্গে স্টেডিয়ামে। 

article

রবার্ট এনকে: এক জার্মান গোলকিপারের ট্র্যাজিক আখ্যান

কিন্তু তিনি সেদিন মিথ্যে বলেছিলেন। সেই মঙ্গলবার হ্যানোভারে কোনো ট্রেইনিং সেশন ছিল না। বাড়ি থেকে বের হয়ে তিনি সারাদিন গোটা শহর ঘুরে বেড়িয়েছেন। টানা ৮ ঘন্টা গাড়ি চালিয়েছেন। শেষ পর্যন্ত গাড়ি থামান এলিভেস রেলওয়ে ক্রসিংয়ের কাছাকাছি গিয়ে। ততক্ষণে মনটাকে স্থির করে ফেলেছেন পরবর্তী করণীয় সম্পর্কে।  

article

আর্থার হোয়ার্টন: ফুটবল ইতিহাসের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ পেশাদার ফুটবলার

বলা হয়ে থাকে,ইংল্যান্ড জাতীয় ফুটবল দলের হয়ে খেলার মতো স্কিলফুল একজন গোলকিপার ছিলেন আর্থার হোয়ার্টন। কিন্তু ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের বর্ণবাদী মনোভাবের কারণেই আর্থারকে কখনো জাতীয় দলের জন্য বিবেচনা করা হয়নি। 

article

ফুটবলের হারিয়ে যাওয়া কৃষ্ণাঙ্গ অগ্রদূতদের সন্ধানে

আধুনিক ফুটবল খেলার আঁতুড়ঘর ইংল্যান্ডকেই ধরা হয়। যদি জিজ্ঞেস করা হয় যে, ব্রিটিশ ফুটবলের ইতিহাসের প্রথম পেশাদার কৃষ্ণাঙ্গ ফুটবলার কে? অনেকেই কোনো দ্বিধা ছাড়াই বলবেন, আর্থার হোয়ার্টন। তবে অনেক ক্রীড়াবিশেষজ্ঞ দীর্ঘদিনের এই ‘একমেবাদ্বিতীয়ম’ দাবিকে প্রশ্নের সম্মুখে দাঁড় করিয়েছেন আজ।

article

কেমন ছিল গার্দিওলার অধীনে বায়ার্ন মিউনিখ?

টানা তিনবার বার্সেলোনাকে লা লিগা জিতিয়েছেন, জিতিয়েছেন দুইটি চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা। বায়ার্ন মিউনিখেও যে তিন মৌসুম দায়িত্বে ছিলেন, সেই তিন মৌসুমে প্রায় ‘পার্ফেকশনে’র কাছাকাছি নিয়ে গিয়েছিলেন দলকে। তবে এই স্ট্যাটসটুকু দেখেই পুরো গল্পটা আন্দাজ করতে পারবেন না। গল্পে অনেকখানি আফসোসও রয়ে গেছে।

article

End of Articles

No More Articles to Load