তারকাদের বিলাসবহুল বাড়ির অন্দরমহলের চিত্র

প্রয়োজনের অধিক চাহিদাকে বলে বিলাসিতা। বিলাসবহুল জীবনযাত্রা তাদেরই মানায় যাদের অঢেল ধনসম্পদ রয়েছে। বিলাসিতা আমাদের কম বেশি সকলের মাঝেই দেখা যায়। তবে এগুলোকেও ছাপিয়ে আলিশান জীবনযাপনের কিছু চিত্রও রয়েছে যা আমাদের কাছে স্বপ্নের মতো। পোশাক, চলাফেরা, বাসস্থান কেবলমাত্র মৌলিক চাহিদা নয়, ধনী ব্যক্তিদের কাছে শৌখিনতার প্রতীকও বটে। চলুন ঘুরে আসা যাক এমন কিছু আলিশান প্রাসাদের অন্দরমহল থেকে। 

বিল গেটসের ‘জানাডু ২.০’

কেমন হতে পারে বিশ্বসেরা ধনী ব্যক্তির বসবাসের স্থান? আমাদের কাছে তো সেটা কেবল স্বপ্নপুরি, যার আধুনিক প্রযুক্তি, সৌন্দর্য, বিলাসিতা সম্পর্কে আন্দাজ করাও মুশকিল। রীতিমত অবাক করার বিষয় হলো পৃথিবীর অন্যতম সেরা ধনী ব্যক্তি বিল গেটসের ৬৬ হাজার বর্গ ফুটের বাসভবন তৈরি করতে সময় লেগেছিল প্রায় ৭ বছর। ওয়াশিংটনের মেডিনায় লেক ওয়াশিংটনের পাশে অবস্থিত এই ভবনের নাম ”জানাডু ২.০” যার নির্মাণব্যয় প্রায় ৬৩ মিলিয়ন ডলার। 

Source: vanitatis.elconfidencial.com

প্রতিবছর তার রাজস্বের পরিমাণটাও রীতিমত বেহুশ করার মতন। ২০০৯ সালের হিসাব অনুযায়ী মোট ১০,৬৩,০০০ ডলার কর দিয়েছিলেন তার সমস্ত বিষয়-সম্পত্তির জন্য। বাসভবনটি ‘আর্থ শেল্টারড’ প্রযুক্তিতে তৈরি, অর্থাৎ বাইরের আবহাওয়া-তাপমাত্রার পরিবর্তনের সাথে ঘরের ভিতরেও তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রিত হতে পারে। বাড়ির সব আসবাবপত্র তৈরি ৫০০ বছরের পুরনো মূল্যবান ডগলাস ফার গাছের কাঠ দিয়ে। ২০০ জন ধারণক্ষমতা সম্পন্ন ২৩০০ বর্গ ফুটের অতিথিশালায় রয়েছে আধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি সেন্সর দেওয়াল। কক্ষের তাপমাত্রা পরিবর্তন বা ঘরের লাইট শেডও পরিবর্তন করে ফেলা যাবে ছোট পিনের মাধ্যমেই। 

Source: hastifun.ir, acara-event.com, acara-event.com, manishen.com, thepinsta.com

এছাড়া জানাডু ২.০ এর ভিতরেই ৩৯০০ বর্গ ফুটের একটি বাংলো রয়েছে যার সামনে আছে ৫০ ফুট লম্বা সুইমিং পুল। এই সুইমিং পুলের বিশেষ আকর্ষণ হলো এর নিচে অবস্থিত মিউজিক সিস্টেম। পুরো বাসভবনে আধুনিক সুবিধাযুক্ত ২৪টি বাথরুম ও ৬টি রান্নাঘর রয়েছে, যেখানে ২৪ ঘন্টাই খাবারের আয়োজন করা থাকে। এছাড়া আধুনিক সুবিধাযুক্ত লাইব্রেরি, ৭টি বেডরুম, ড্রইংরুম রয়েছে। এছাড়া বাড়ির সামনে রয়েছে ২৩টি গাড়ির ধারণক্ষমতার পার্কিং স্পট। সব মিলিয়ে যেন এক কল্পনার স্বর্গরাজ্য। 

শাহরুখ খানের ‘মান্নাত’

মূল্যের দিক থেকে ভারতবর্ষে তৃতীয় এবং সমগ্র বিশ্বে সেরা ১০টি বিলাসবহুল বাড়ির তালিকায় নাম রয়েছে শাহরুখ খানের ‘মান্নাত’। মুম্বাইয়ের বান্দ্রা শহরে প্রায় ২৬,৩২৮.৫২ বর্গ ফুট জায়গা জুড়ে অবস্থিত এই ‘মান্নাত’ তিনি ২০০১ সালে তার প্রতিবেশি নারিমান দুবাসের কাছ থেকে কিনেছিলেন। বাড়িটিতে একটি স্বতন্ত্র প্রার্থনার ঘর আছে, যেটা কিং খানের এই বাড়ি কেনার আগ্রহের কারণ ছিল বলে শোনা যায়।

তিনি এর নাম স্থির করেন ‘জান্নাত’। সেসময় তিনি বহু অনুরোধের পর নারিমান দুবাসের নিকট থেকে ১৩.৩২ কোটি রুপি দিয়ে  বাড়িটি কেনেন, যার বর্তমান মূল্য ২০০ কোটি রুপি। বাড়ির মালিকানা পাওয়ার পর তার সাফল্যও যেন অনেকগুণ বেড়ে গেল। তাই তিনি পরবর্তীতে ‘জান্নাত’ এর বদলে ‘ভিলা ভিয়েনা‘ পরিবর্তন করে নাম রাখেন ‘মান্নাত’। কিং খান তার স্ত্রী ও তিন সন্তানসহ মান্নাতে বসবাস করেন। 

Source: mindthenews.com

বিলাসবহুল এই বাড়ির বাইরের দেওয়ালে শ্বেত মার্বেলের ব্যবহারে যেন রাজপ্রাসাদের আমেজ এনে দেয়। একইভাবে বেশ আভিজাত্য আর সাবেকী ধাঁচে সাজানো মান্নাতের অন্দরমহলও। রাজসিক খাট, দেয়ালজুড়ে তৈলচিত্র, গালিচা, সুনিপুণ কারুকাজের আসবাবপত্রের বাহার দেখলেই বোঝা যায় বলিউডের কিং খান ব্যক্তিজীবনেও বাদশাহী ঢঙেই প্রাসাদে বসবাস করেন। তোরণদ্বার সহ বাড়ির অন্যান্য পিলারগুলোর কারুকাজও নজরকাড়া। রাজসিক ঢঙের বাইরেও আধুনিক ইতালিয়ান স্থাপত্যের ছোঁয়া যেন বাড়িটিকে আরো দৃষ্টিনন্দন করে তোলে।

Source: risingbd.com

বাচ্চাদের জন্য রয়েছে পুরো একটি ফ্লোর। এছাড়াও রয়েছে ড্রয়িং রুম, বেড রুম, ডাইনিং রুম, রান্নাঘর, লাইব্রেরি, প্রেয়ার রুম, প্রাইভেট বার, এন্টারটেইনমেন্ট রুম, গেস্ট রুম, জিম, অফিস ও সুইমিং পুল। বেজমেন্ট কার পার্কিং ছাড়াও বাড়ির সামনে রয়েছে দৃষ্টিনন্দন বাগান। সব মিলিয়ে শাহরুখ খান ও তার স্ত্রী গৌরীর পুরো বাড়িটি সাজাতে সময় লেগেছিল প্রায় চার বছর

অমিতাভ বচ্চনের ‘জলসা’

মুম্বাইয়ের জুহু এলাকায় প্রায় ১০,১২৫ বর্গ ফুট জায়গা জুড়ে অবস্থিত দোতলা বাংলো ‘জলসা’য় সপরিবারে থাকেন বিগ বি। তবে নিজের শৈশব আর দুই সন্তানের বাল্যকাল কেটেছে ‘প্রতীক্ষা’ নামক বাড়িতে, যার অবস্থান জলসার পাশেই। অমিতাভ বচ্চনের ভারতের মুম্বাইয়ে ৬টি, দুবাইতে একটি ও প্যারিসে একটি বাংলো আছে। ‘জলসা’ বাংলোটি পরিচালক রমেশ সিপি তাকে উপহার দেন। তারপর থেকে তিনি সপরিবারে এখানেই বসবাস করেন। 

Source: Bangla Insider

বাড়িটিতে রয়েছে প্রার্থনা ঘর, যেখানে বেশ জাঁকজমকভাবে দেবতার আসন সাজিয়েছেন জয়া বচ্চন। এছাড়া প্রতিটি কক্ষে রয়েছে আভিজাত্যের ছোঁয়া। একটি কক্ষে দেয়াল জুড়ে রয়েছে অমিতাভ বচ্চনের অতীতের স্মৃতিবাহক বিভিন্ন ছবি। সেগুলোতে চোখ বুলাতেই যেন তার জীবনের সব গল্প ভেসে আসে চোখের সামনে। বাড়িটির মূল্য প্রায় ১১২ কোটি রুপি।

Source:hamaraphotos.com, yenicerigrup.net, Luxury Dhaka

তবে অমিতাভ বচ্চন এখনও শিকড়ের টানে নিয়মিত ছুটে যান ‘প্রতীক্ষায়’। প্রতি রবিবার প্রতীক্ষার সামনেই ভিড় জমে ভক্তদের,  তাদের শাহেনশাকে একনজর দেখার জন্য।  

অপরাহ উইনফ্রের ‘হেয়ার্স্ট ক্যাসল’

মানসিক অত্যাচার, দারিদ্র্যের নাগপাশ ভেদ করে পূর্ণ মনোবল নিয়ে এগিয়ে চলা জনপ্রিয় টক শো ‘অপরাহ উইনফ্রে শো’র সঞ্চালক অপরাহ উইনফ্রে। সবচেয়ে জনপ্রিয় টিভি শোতে সঞ্চালক ছাড়াও প্রযোজক, পরিচালক হিসেবেও মিডিয়াতে রাজত্ব করেছেন। মিডিয়ার এই রানীর বর্তমান নিবাস ক্যালিফোর্নিয়ার সান্তা বারবারাতে। সেখানে প্রায় ৪২ একর জমিতে ২৩০০ বর্গ ফুট জায়গা জুড়ে রয়েছে তার বাংলো। তার এই ১৪ মিলিয়ন ডলারের বাংলোতে যেতে হয় গন্ডলা নামক এক নৌকায় চেপে। কারণ প্রকৃতিপ্রেমী এই অভিনেত্রীর বাড়ির চারপাশে লেক আর পাহাড়ে ঘেরা। শহরের বাইরে অবস্থিত অপরাহর এই বাংলোর নাম ‘হেয়ার্স্ট ক্যাসল’।

Source:homes.nine.com.au

বাড়িটিতে রয়েছে ৬টি বেডরুম, ১৪টি বাথরুম, ১০টিরও অধিক ফায়ারপ্লেস, হোম থিয়েটার, সুইমিং পুল, অতিথিশালা, টেনিস কোর্ট, টি হাউজ, অনেক দেশি-বিদেশি বইয়ের সংরক্ষণে রিডিং রুম। আলোকসজ্জায় ভরপুর এই বাড়িটির প্রতিটি আসবাবপত্রই তার উন্নত রুচিশীলতার পরিচয় বহন করে। 

Source:nimvo.com

 প্রায় ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সম্পত্তির অধিকারিণী এই মানবী যেন পুরো পৃথিবীকে দেখিয়ে দিয়েছেন- কোনো ব্যর্থতাই জীবনের সমাপ্তি নয়, বরং জীবনকে পুনরায় গড়ে তোলার শিক্ষা নিয়ে এগিয়ে চলতে হবে। 

মুকেশ আম্বানির ‘আন্টিলিয়া’

ধনাট্য শিল্পপতি ধিরুভাই আম্বানির পুত্র মুকেশ আম্বানি জন্মগতভাবেই বিশাল সম্পদের অধিকারী। মাত্র ৪১ বছর বয়সেই তার সম্পদের পরিমাণ প্রায় ২২.৩ বিলিয়ন ডলার। ধনকুবের মুকেশ আম্বানি মুম্বাই শহরে ৪৯ হাজার বর্গ ফুট জায়গা জুড়ে ৫৭০ ফুট গগনচুম্বী অট্টালিকায় গড়ে তুলেছে নিজের সাম্রাজ্য। ২৭ তলার এই বাড়িটি মূলত ৬০ তলার সমান। অর্থাৎ উচ্চতায় সাধারণ বাড়ির তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। প্রাসাদতুল্য এই বাড়ির নির্মাণব্যয় শুনলে রীতিমত চোখ কপালে উঠবে যে কারো, প্রায় ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। 

Source: Luxury Dhaka

২৭ তলার এই বাড়ির ৬ তলায় রয়েছে গাড়ি পার্কিংয়ের জায়গা, সেখানে তাদের পরিবারের ব্যবহারের জন্য রয়েছে প্রায় ১৬৮টি গাড়ি। ৬ তলা হলেও সেখান থেকে রাস্তায় আসতে সময় লাগে মাত্র ১ মিনিট, এমনভাবেই তৈরি হয়েছে বাড়ির আর্কিটেকচারাল ডিজাইন।

১১ তলায় রয়েছে ৫০ আসন বিশিষ্ট মুভি থিয়েটার, যা ভারতের সবচেয়ে সেরা থিয়েটার হিসেবে পরিচিত। এছাড়া সুইমিংপুল, বলরুম, হেলথ ক্লাব, ইয়োগা ক্লাব, স্পা রুম রয়েছে ১০ম তলায়। ছাদের উপরেই রয়েছে তিনটি হেলিপ্যাড। তাই যাতায়াতের সুবিধার জন্য মুকেশ আম্বানি ও তার পরিবার থাকেন একদম উপরের দিকের ফ্ল্যাটে। এছাড়া উপরের চারটি ফ্ল্যাট থেকেই একদিকে পাওয়া যায় আরব সাগরের মনোমুগ্ধকর দৃশ্য, অন্যদিকে পুরো মুম্বাই শহরও দেখা যায়। বাড়িটি শীতল রাখতে রয়েছে ঝুলন্ত বাগান। জানা যায়, বাড়িটি ৮ মাত্রার ভূমিকম্পও সহ্য করতে সক্ষম। 

Source: luxury.com.bd

আন্টিলিয়ার পরিচর্যায় রয়েছে ৬০০ জন কর্মী। তবে দুই-একজন ব্যতীত কারোরই তাদের ফ্ল্যাটে যাওয়ার অনুমতি নেই। এমনকি প্রতিদিনই পরিবর্তন হয় সেখানে ঢোকার পাসোয়ার্ড। 

মার্ক জাকারবার্গের বাড়ি

অল্প বয়সেই বিলিয়নার তরুণ উদ্যোক্তা মার্ক জাকারবার্গের বেশ খ্যাতি রয়েছে জনহিতৈষী হিসাবে। তার অর্জিত অর্থের সিংহভাগই দান করেন বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বা সমাজসেবামূলক কর্মকান্ডে। তিনি সপরিবারে বসবাস করেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার পালো আল্টোতে। এছাড়া সানফ্রান্সিসকোতে তার ছোট একটি বাংলো রয়েছে। সেটার মূল্য ৯.৯ মিলিয়ন ডলার। ফেসবুকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ব্যক্তিজীবনে বেশ গোপনীয়তা পছন্দ করেন। তাই জাঁকজমকপূর্ণ না হলেও নান্দনিক সুনিপুণতায় সাজিয়েছেন তার বাংলো। অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার না থাকলেও রয়েছে গোপনীয়তার উপযুক্ত ব্যবস্থা। 

Source:YouTube

মার্ক জাকারবার্গ ২০১১ সালে বাড়িটি কেনেন ৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দিয়ে। প্রায় ৫০০০ বর্গ মাইল এলাকা জুড়ে নির্মিত তার এই বাড়ির চারপাশে রয়েছে সবুজের ছোঁয়া। বাড়িতে আছে ৫টি বেডরুম, ৫টি বাথরুম, একটি আউটডোর ফায়ারপ্লেস, সুইমিং পুল, মিউজিক জোন, রান্নাঘর সহ খোলা বারান্দা। রয়েছে প্রকৃতির মাঝে বসে অতিথিদের সাথে আড্ডা দেওয়ার সুসজ্জিত জায়গা। নানা ফুল, আর বাহারী গাছেই যেন সজ্জিত থাকে এই তারকার বাংলো। তবে সম্প্রতি তার বাংলোর গোপনীয়তা রাখতে আশেপাশে তিনি আরো চারটি বাড়ি কিনেছেন ৪৩.৮ মিলিয়ন ডলার ব্যয়ে। 

Source:UnikQu, haaretz.com, Business Insider

তারকাদের নিয়ে কৌতূহলের শেষ নেই সাধারণ মানুষের। তাদের শৌখিনতা, রুচিবোধ দিয়ে সাজানো সাম্রাজ্জ্যের চিত্র দেখতে একদিকে যেমন মানুষ প্রবল আগ্রহ নিয়ে বসে থাকে, অন্যদিকে আবার হিংসাও জাগায় মানুষের মনে। কখনও কখনও তাদের আভিজাত্য হার মানায় রাজপ্রাসাদকেও। 

ফিচার ইমেজ- vanitatis.elconfidencial.com

Related Articles