মজাদার ডেজার্ট: যা খাবারে আনে পূর্ণতা

গত পর্বে আমরা দেখেছিলাম বিশ্ব জুড়ে তৈরি হওয়া মজার কিছু কেকের রেসিপি। আজ দেখবো বিভিন্ন কুকিজ এবং আইসক্রিমের রেসিপি যা আপনার ডেজার্ট লিস্টকে আরও সমৃদ্ধ করবে। ডেজার্ট আইটেম ছাড়া যেন কোনো আয়োজনই পূর্ণ নয়। কিন্তু এতে এত ভিন্নতা খুঁজে পাওয়াও দুষ্কর। একই রকম ডেজার্ট খেতে সবসময় ভালও লাগে না। আগত অতিথি কিংবা বাড়ির মানুষকে চমকে দিতে আপনিও বানিয়ে ফেলুন একেবারেই ভিন্নধর্মী কিন্তু সহজ এই আইটেমগুলো।

১. চকোমিন্ট আইসক্রিম

চকলেট এবং পুদিনা পাতার কম্বিনেশনটা খুবই সুস্বাদু এবং ভিন্নধর্মী হয়ে থাকে। সারা বিশ্বে তৈরি হওয়া আইসক্রিমের মধ্যে এই ফ্লেভারের আইসক্রিম সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়ে থাকে। এই আইটেমটি তৈরি করতে চাইলে আপনার যা যা প্রয়োজন

  • ১ কৌটা কন্ডেনসড মিল্ক

  • ১ প্যাকেট চকলেট চিপস

  • পুদিনা পাতার নির্যাস

  • ঘন ক্রিম (সুপার শপে কিনতে পাওয়া যায়)

প্রথমে একটি পাত্রে ক্রিম নিয়ে ভালমতো ফেটে ফোম বানিয়ে নিন। এতে কন্ডেন্সড মিল্ক মেশান এবং আবারো ফেটতে থাকুন। সবশেষে পুদিনা পাতার নির্যাস এবং চকলেট চিপস দিয়ে নেড়ে নিন। সাথে আপনি পছন্দের ফুড কালারিং ব্যবহার করতে পারেন। পুরো মিশ্রণটি আধা ঘণ্টা ফ্রিজে সংরক্ষণ করুন।

তৈরি হয়ে গেলো আইসক্রিম পার্লারের মতোই ভিন্ন ফ্লেভারের চকোমিন্ট আইসক্রিম।

চকোমিন্ট আইসক্রিম; Source: Simply Loving It

২. চকোলেট অরেঞ্জ কুকিজ উইথ ক্রিম চিজ ফিলিং

এই কুকিজ তৈরিতে যা যা লাগবে

  • ২ কাপ ময়দা

  • ১ চা চামচ কোশার লবণ

  • ১ চা চামচ বেকিং পাউডার

  • আধা কাপ মাখন

  • এক কাপ চিনি

  • ১ চা চামচ ভ্যানিলা

  • ১টি ডিম

  • ১ টেবিল চামচ কমলার খোসা কুচি

  • পৌনে এক কাপ চকলেট চিপস

  • ক্রিম চিজ ফিলিং (নীচে রেসিপি দ্রষ্টব্য)

প্রস্তুত প্রণালী

৩৫০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় ওভেন গরম করে নিন। একটি পাত্রে ময়দা, বেকিং পাউডার, লবণ নিয়ে একসাথে মিশিয়ে নিন। আরেকটি পাত্রে মাখন, চিনি, ডিম, ভ্যানিলা, কমলার খোসা একত্রে বিট করে নিন। শুকনো উপাদান থেকে অর্ধেক এবং তরল উপাদানের অর্ধেক প্রথমে ভালো করে মিশিয়ে নিন। তারপর বাকি অংশ অল্প অল্প করে মেশান।

এক স্কুপ করে মিশ্রণ হাতে নিয়ে বল আকারে তৈরি করুন। প্যানে বেকিং শিট বিছিয়ে ৪ ইঞ্চি ফাঁকা রেখে এক একটি বল বসিয়ে দিন। ১২ থেকে ১৪ মিনিট বেক করুন।

ক্রিম চিজ ফিলিং

  • ৪ আউন্স ক্রিম চিজ

  • আধা কাপ মাখন

  • ২ কাপ মিহিদানার চিনি

সব উপকরণ একসাথে ব্লেন্ড করুন।

চমৎকার চকলেট অরেঞ্জ কুকিজ; Source: Food Reddit

দুটি বিস্কুট নিয়ে এর মাঝখানে ক্রিম চিজ ফিলিং মাখিয়ে নিন। তৈরি হয়ে গেল চকোলেট অরেঞ্জ কুকিজ উইথ ক্রিম চিজ ফিলিং।

৩. পাভলোভা উইথ ব্লুবেরি জ্যাম

বলা হয় একজন বিখ্যাত ব্যালেট ড্যান্সার এর নামে এই ডেজার্টের নামকরণ করা হয়।

  • ৬টি ডিমের সাদা অংশ (কুসুমটুকু আইসক্রিম বানানোর জন্য প্রয়োজন হবে)

  • ১ চা চামচ ক্রিম অফ টারটার (বেকিং সোডা এবং বেকিং পাউডারের মিশ্রণের বিকল্প)

  • চা চামচের এক চতুর্থাংশ লবণ

  • সোয়া এক কাপ চিনি

এবং

  • এক কাপ ব্লুবেরি

  • আধা কাপ চিনি

  • আধা কাপ কর্ণ সিরাপ

  • ১ টেবিল চামচ লেবুর রস

  • ১ চা চামচ লেবুর নির্যাস

  • পুদিনা পাতা (সাজানোর জন্য)

মিক্সারে ডিমের সাদা অংশ, ক্রিম অফ টারটার এবং লবণ তিন মিনিটের জন্য মিক্স করুন। তারপর মিক্সার চালু থাকা অবস্থায় এক চামচ করে চিনি মেশান। মিশ্রণটি ঘন হয়ে আসলে মিক্সার বন্ধ করে দিন। একটি প্যানে মিশনটি এক চামচ করে দিয়ে মাঝখানে চামচের উল্টো পাশ দিয়ে চাপ দিয়ে গর্ত করুন। এই অংশে পরবর্তীতে জ্যাম দেয়া হবে। ২৫০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় ১ ঘণ্টা ২০ মিনিট বেক করুন।

জ্যাম তৈরি করার জন্য ব্লুবেরি, চিনি, কর্ণ সিরাপ, লেবুর রস, লেবুর নির্যাস একটি ছোট পাত্রে নিন। মাঝারি আঁচে ছয় থেকে আট মিনিট রান্না করুন। ঠাণ্ডা হলে জ্যাম ঘন হয়ে আসবে। এবার পাভলোভার (বেক করা বিস্কুট) মাঝের অংশে জ্যাম দিয়ে দিন।

ডিমের কুসুম, এক লিটার দুধ এবং ২ চা চামচ ভ্যানিলা এসেন্স একসাথে ফেটে ফোম তৈরি করুন। চুলায় ২০ মিনিট মৃদু আঁচে রান্না করুন। ঠাণ্ডা হয়ে এলে ফ্রিজে রেখে জমাট করুন। তৈরি হয়ে গেল ভ্যানিলা আইসক্রিম।

পাভলোভা উইথ ব্লুবেরি জ্যাম; Source: Huff post

এবার বিস্কুট, জ্যাম এবং আইসক্রিম পুদিনা পাতা দিয়ে সাজিয়ে সুন্দর করে পরিবেশন করুন।

৪. আলফাজরস ডুলস ডে লিচি

খুব কাঠখোট্টা নাম হলে স্বাদে-গন্ধে এই কুকিজ আইটেমটি অতুলনীয়। এটি বানাতে হলে আপনার যা যা লাগবে-

ডুলস ডে লিচির জন্য

  • ২৮ আউন্স মিষ্টি কন্ডেনসড মিল্ক

  • আধা চা চামচ লবণ

দুটি উপকরণ একটি প্যানে নিয়ে  চার মিনিট চুলায় মৃদু আঁচে নাড়ুন। তারপর আঁচ আরও কমিয়ে আরও ১৩ মিনিট রাখুন। এই মিশ্রণটি ঘন ক্যারামেল রঙের হবে।

আলফাজরস এর জন্য

  • ২ কাপ ময়দা

  • পৌনে এক চা চামচ বেকিং পাউডার

  • পৌনে এক চা চামচ বেকিং সোডা

  • আধা চা চামচ লবণ

  • এক কাপ কর্ণ স্টার্চ

  • ৬ আউন্স মাখন

  • ১ কাপ চিনি

  • ১ টেবিল চামচ লেবুর নির্যাস

  • ৩টি ডিমের কুসুম এবং একটি ডিম

  • ২ টেবিল চামচ অ্যালকোহল

  • ১ চা চামচ ভ্যানিলা এসেন্স

  • ২ থেকে আড়াই কাপ ডুলস ডে লিচি

  • ২ টেবিল চামচ মিহিদানার চিনি

একটি পাত্রে মিক্সার বসিয়ে মাখন এবং চিনি মিক্স করে ঘন করে নিন। তারপর এক এক করে তরল উপাদান দিয়ে দিন। এরপর শুকনা উপাদানগুলো আলাদা পাত্রে মিশিয়ে নিন। মিক্সারে এক টেবিল চামচ করে শুকনা উপাদান ঢালতে থাকুন। সম্পূর্ণ মেশানো হয়ে গেলে এক থেকে দেড় ঘণ্টা ফ্রিজে রেখে জমিয়ে নিন।

৩৫০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপে ওভেন গরম করে নিন। মিশ্রণটি ফ্রিজ থেকে বের করে রুমের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় কিছুক্ষণ রাখুন। তারপর একটু একটু করে অংশ হাতে নিয়ে গোল করে আট থেকে দশ মিনিট বেক করুন।

আলফাজরস ডুলস ডে লিচি; Source: canolscocina.es

বিস্কুট অর্থাৎ আলফাজরস হয়ে গেলে মাঝে ডুলস ডে লিচি এক বা দুই চামচ করে দিয়ে স্যান্ডুইচ আকারে তৈরি করুন। উপরে মিহিদানার চিনি ছড়িয়ে দিন। এভাবে বানানো কুকিজ ৩ দিন পর্যন্ত সংরক্ষণ করা যায়।

৫. টোস্টেড কোকোনাট টফি কুকিজ

যা যা লাগবে

  • এক কাপ ময়দা

  • আধা চা চামচ বেকিং পাউডার

  • আধা চা চামচ বেকিং সোডা

  • এক চিমটি লবণ

  • পৌনে এক কাপ ব্রাউন সুগার

  • ৪ টেবিল চামচ মাখন

  • ১ চা চামচ ভ্যানিলা এসেন্স

  • আধা চা চামচ নারিকেলের নির্যাস

  • ১ কাপ নারিকেল কোড়ানো

  • ১টি ডিম

  • ১ কাপ টফি

  • ১ কাপ চকলেট চিপস

লোভনীয় টোস্টেড কোকোনাট টফি কুকিজ; Source: 5 Boys Bakery

৩৫০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় ওভেন গরম করে নিন। একটি প্যানে বেকিং শিট বিছিয়ে তাতে কোড়ানো নারিকেল ছড়িয়ে দিন। ৫/৭ মিনিট বেক করুন।  হয়ে গেলে ঠাণ্ডা করে নিন। একটি পাত্রে ময়দা, বেকিং পাউডার, বেকিং সোডা এবং লবন চেলে নিন। আরেকটি পাত্রে মিক্সার বসান। ব্রাউন সুগার এবং মাখন একসাথে মেশান। একে ভ্যানিলা এসেন্স, নারিকেলের নির্যাস ও ডিম ছাড়ুন। অন্য পাত্রে রাখা ময়দার মিশ্রণ একটু একটু করে ঢেলে দিন। সবশেষে বেক করা নারিকেল, টফি এবং চকলেট চিপস ঢেলে দিন। সব একসাথে মিশে গেলে মিক্সার বন্ধ করে দিন। এক টেবিল চামচ করে মিশ্রণ উঠিয়ে একটি প্যানে ২ ইঞ্চি জায়গা ফাঁকা রেখে বসিয়ে দিন। ১০ মিনিট বেক করুন।

ব্যাস, হয়ে গেল পাঁচটি মজাদার এবং গৎবাঁধা নিয়ম থেকে ভিন্ন কিছু ডেজার্ট আইটেম। ভারি খাবার শেষে এই ডেজার্টের মিষ্টতায় আপনার রান্নার প্রশংসা যে আরও শতগুণ বেড়ে যাবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। আপনাদের খাবারে আরও ভিন্নতা আনতে আর কী কী ধরনের রেসিপি জানতে চান সেটাও আমাদেরকে জানাতে পারেন। আর প্রতিটি খাবার বানানো শেষে দাওয়াত করতে ভুলবেন না যেন!

ফিচার ইমেজ সোর্স —> dinnerthendesserts.com

Related Articles