দ্বিতীয় মহাযুদ্ধ মানব সভ্যতার ইতিহাসে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এক ঘটনা। বিভীষিকায় এই মহাযুদ্ধ ছাড়িয়ে গেছে এখন পর্যন্ত সংগঠিত যেকোনো যুদ্ধকে। এর প্রভাব পৃথিবীর প্রতিটি জাতি, দেশ ও রাষ্ট্র প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষভাবে অনুভব করেছে। পুরো পৃথিবী জুড়ে ছিল এই মহাযুদ্ধের প্রলয়ঙ্করী প্রভাব; কোথাও কম, কোথাওবা বেশি। মানবতার চরম অবক্ষয় ঘটিয়ে ইতিহাসের ধূসর অ্যালবামে অতীত হয়ে আছে এই মহাযুদ্ধ; কিন্তু তার সুদূরপ্রসারী প্রভাব আজও অনুভূত হয়। দ্বিতীয় মহাযুদ্ধ ঠিক কবে শুরু হয়েছিল, এই নিয়ে মতবিরোধ রয়েছে। অনেকের মতে, ১৯৩১ সালে জাপান কর্তৃক চীনের মাঞ্চুরিয়া আক্রমণ ছিল এই মহাযুদ্ধের শুরু। কারো কারো ধারণা, বেনিতো মুসোলিনির ১৯৩৯ সালের ৭ এপ্রিল আলবেনিয়া আক্রমণের মাধ্যমে দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের সূচনা হয়। আবার কেউ কেউ প্রথম ও দ্বিতীয় মহাযুদ্ধকে কেবল দুই দশকের একটি বিরতি নেয়া একই যুদ্ধ বলে মনে করে। এছাড়াও ১৯৩৫ সালে ইতালির ইথিওপিয়া (তৎকালীন আবিসিনিয়া) আক্রমণ, ‘৩৬ সালে জার্মানির রাইনল্যান্ডে হিটলারের সামরিক উপস্থিতি কিংবা ১৯৩৮ সালে জার্মানি কর্তৃক চেকোস্লোভাকিয়া দখল করে নেওয়াকেও মহাযুদ্ধের শুরু হিসেবে অনেকে মনে করেন। তবে অধিকাংশ ইতিহাসবিদের মতে, দ্বিতীয় মহাযুদ্ধ শুরু হয় হিটলারের আদেশে জার্মানির পোল্যান্ড আক্রমণের মাধ্যমে, ১৯৩৯ সালের ১ সেপ্টেম্বরের ভোরবেলায়। দিনটি ছিল শুক্রবার যা ইতিহাসে Grey Friday নামে পরিচিত। এখানে এই ১ সেপ্টেম্বরকেই দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের উপক্রমণিকা হিসেবে ধরা হবে। শুরু হোক তাহলে দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের ইতিহাসযাত্রা।

১৯৩৯ সালের ১১ সেপ্টেম্বর টাইম ম্যাগাজিনে প্রকাশিত হয় Gray Friday-এর ঘটনা source: time.com

জার্মানি ও সোভিয়েত ইউনিয়নের পোল্যান্ড আক্রমণ ও ব্রিটেনের যুদ্ধঘোষণা (১ সেপ্টেম্বর – ৫ অক্টোবর, ১৯৩৯)

সেপ্টেম্বর, ১৯৩৯- পোল্যান্ডে জার্মান আগ্রাসনের সূচনা। দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের আনুষ্ঠানিক উপক্রমণিকা হয় এই আগ্রাসনের মধ্য দিয়ে। তৎক্ষণাৎ ফ্রান্স ও ব্রিটেন পোল্যান্ড থেকে জার্মান সৈন্য প্রত্যাহারের দাবি জানায়। হিটলার জার্মানিতে ইহুদীদের চলাচলের উপর কার্ফ্যু জারি করে।

সেপ্টেম্বর ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী নেভিল চেম্বারলিন শেষবারের মতো হিটলারকে পোল্যান্ড থেকে সৈন্য প্রত্যাহারের জন্য আল্টিমেটাম দেন।

৩ সেপ্টেম্বর আটলান্টিক মহাসাগরে জার্মান ডুবোজাহাজ ইউ-৩০ টর্পেডো মেরে ডুবিয়ে দেয় ব্রিটেনের যাত্রীবাহী জাহাজ অ্যাথেনিয়াকে। এই ঘটনায় প্রায় ১২৮ জনের প্রাণহানি ঘটে। ব্রিটেন, ফ্রান্স, নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া একযোগে জার্মানির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে। পরের দিন ব্রিটেনের রাজকীয় বিমানবাহিনী পশ্চিম ও উত্তর জার্মানিতে ৬০ লক্ষ লিফলেট ছাড়ে। একইসাথে তাদের ত্রিশটি যুদ্ধবিমান জার্মানির ভিলহেলমশ্যাভেন ও কিয়েল ক্যানেলে অবস্থিত জার্মান নৌঘাঁটিতে আক্রমণ করে। তবে এই আক্রমণ তেমন কার্যকর ছিল না। জার্মানরা সাতটি বিমানকে ভূপাতিত করে।

৫ সেপ্টেম্বর জার্মান সেনাবাহিনী পোল্যান্ডের দীর্ঘতম ভিস্টুলা নদী অতিক্রম করে। এদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এই মহাযুদ্ধে তাদের নিরপেক্ষতা ঘোষণা করে। জ্যান স্মুটস দক্ষিণ আফ্রিকার চতুর্থ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হন। নির্বাচিত হবার পরের দিনই দক্ষিণ আফ্রিকা জার্মানির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে।

এদিকে সপ্তাহখানেকের যুদ্ধ শেষে ৭ সেপ্টেম্বর ভেস্তারপ্লাতের যুদ্ধে জার্মানি জয়লাভ করে। তারা ওয়ারশ থেকে ৩০ মাইল উত্তরে পুলতুস্ক শহর পর্যন্ত পৌঁছে যায় এবং একইসাথে পোল্যান্ডের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর ক্র্যাকো দখল করে নেয়।

৮ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ পোল্যান্ডের বেডজিন শহরে জার্মান হানাদার বাহিনী প্রায় ২০০ ইহুদীকে তাদের উপাসনালয়ের (Synagogue) ভিতরে জীবন্ত পুড়িয়ে মারে; সাথে ৩০ জনকে জনসমক্ষে মৃত্যুদণ্ড দেয়। ওয়ারশ শহরতলীর কাছাকাছি পৌঁছে যায় জার্মান সৈন্যরা।

৯ সেপ্টেম্বর মধ্য পোল্যান্ডের জুরা নদী অতিক্রম করার সময় পোলিশদের পাল্টা আক্রমণের মুখে পড়ে জার্মান প্যাঞ্জার ডিভিশন।

১০ সেপ্টেম্বর জার্মানির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে কানাডা। ফলে দ্বিতীয় মহাযুদ্ধে আনুষ্ঠানিকভাবে যুক্ত হয় আরেকটি মহাদেশ। ব্রিটেনের ডুবোজাহাজ ট্রিটন ভুলবশত টর্পেডোর আঘাতে ডুবিয়ে দেয় আরেক ব্রিটিশ ডুবোজাহাজ এইচএমএস অক্সলেকে। ওয়ারশতে নির্বিচারে বোমাবর্ষণ করে জার্মান লুফট‌্ভাফে। মারা যেতে থাকে শ’য়ে শ’য়ে নিরীহ মানুষ; উদ্বাস্তু হয় অসংখ্য পরিবার।

১১ সেপ্টেম্বর ইরাক ও সৌদি আরব জার্মানির সাথে তাদের কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে। জার্মানদের আক্রমণ দিনে দিনে আরো ক্ষুরধার হতে থাকে; বিশেষত ওয়ারশে।

১৭ সেপ্টেম্বর সোভিয়েত ইউনিয়ন পূর্ব ফ্রন্ট দিয়ে পোল্যান্ড আক্রমণ করে। পরদিন জার্মান ও সোভিয়েত সৈন্যরা ব্রেস্ট শহরে মিলিত হয়। এদিকে ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে জার্মানিতে খাদ্যে রেশনিং ব্যবস্থা চালু করা হয়।

অতপর দু’সপ্তাহের যুদ্ধ শেষে ২৭ সেপ্টেম্বর জার্মানদের কাছে পতন ঘটে ওয়ারশ শহরের। জার্মানি ও সোভিয়েত ইউনিয়ন পোল্যান্ডের দখলকৃত অংশ নিজেদের ভেতর ভাগ করে নেয়।

অক্টোবরের শুরুতে পোল্যান্ডের নৌবাহিনী আত্মসমর্পণ করে। অবশেষে ৫ অক্টোবর সম্পূর্ণ পোল্যান্ডের পতন ঘটে।

বার্লিনের ক্রল অপেরা হাউসের রাইশট্যাগ মিটিংয়ে দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের মূল খলনায়ক অ্যাডলফ হিটলার; পাশে নাৎসি পার্টির ডেপুটি রুডলফ হেস; source: ww2db.com

 

জার্মান যুদ্ধজাহাজ থেকে পোল্যান্ডের ডানজিগে বোমাবর্ষণ করা হচ্ছে; source: ww2db.com

আত্মসমর্পণকারী পোলিশ সৈন্যদের যুদ্ধবন্দী হিসেবে নিয়ে যাচ্ছে জার্মান নাৎসি বাহিনী, স্থান: ডানজিগ পোস্ট অফিসের সামনে; source: ww2db.com

পোল্যান্ডে বসবাসরত জার্মান নারীদের থেকে রুটি নিচ্ছে জার্মান সৈন্যরা; source: German Federal Archive

৩ তারিখ ব্রিটেনের রাজা ষষ্ঠ জর্জ বাকিংহাম প্রাসাদে ব্রিটিশদের উদ্দেশ্যে রেডিওতে ভাষণ দিচ্ছেন; source: United Kingdom National Archives

এই সেই টাইপ করা স্ক্রিপ্ট যেখান থেকে ব্রিটেনের রাজা ষষ্ঠ জর্জ জার্মানদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেন; source: United Kingdom National Archives

ষষ্ঠ জর্জের যুদ্ধ ঘোষণাপত্রের দ্বিতীয় পৃষ্ঠা; source: United Kingdom National Archives

A PROCLAMATION: পরদিন অর্থাৎ ৪ সেপ্টেম্বর রাজার আদেশ লন্ডনবাসীকে শোনাচ্ছেন লন্ডন শহরের ভারপ্রাপ্ত শহর ঘোষক (Town Crier) ডব্লিউ টি বোস্টন; source: Imperial War Museums

ব্রিটেনের যুদ্ধ ঘোষণার স্বপক্ষে পোল্যান্ডের ওয়ারশতে মিছিল করছে পোলিশরা; source: ww2db.com

দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের শুরুতে নিরপেক্ষতা অবলম্বন করা যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকেরা পোল্যান্ডের ওয়ারশে জার্মান হামলার খবর পড়ছে; source: historyinfotos.com

পোল্যান্ডে জার্মান প্যাঞ্জার ডিভিশন; source: German Federal Archive

৪ সেপ্টেম্বর আক্রমণের জন্য রওয়ানা হয়েছে ব্রিটেনের রাজকীয় বিমানবাহিনীর ভিকার্স ওয়েলিংটন; source: historyofwar.org

পোল্যান্ডের কাদা মাড়িয়ে এগিয়ে যাচ্ছে জার্মান যুদ্ধযান; source: German Federal Archive

মেয়েটি তার পোষা কুকুরটিকে কোলে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। ওয়ারশতে এই ছবিটি তুলেছেন জুলিয়েন ব্রায়ান; source: United States Holocaust Memorial Museum

যুদ্ধের নগ্নতার মাঝে দাঁড়িয়ে এক নিঃসঙ্গ ঘোড়া; source: Heydrich/German Federal Archive

জার্মান বোমায় ক্ষতিগ্রস্ত পোল্যান্ডের ভাইলুন শহর; source: ww2db.com

ভেস্তারপ্লাতের যুদ্ধে জয়লাভের পর বিধ্বস্ত ডানজিগে জার্মান বাহিনী। দু’শরও কম পোলিশ সৈন্য ৭ দিন পর্যন্ত জার্মানদের ঠেকিয়ে রাখতে পেরেছিল; source: historyinfotos.com

এরা সবাই পোলিশ স্নাইপারদের গুলিতে প্রাণ হারানো পোল্যান্ডে বসবাসকারী জার্মান নাগরিক। ছবিটি ৮ সেপ্টেম্বর তোলা হয়; source: historyinfotos.com

হাইঙ্কেল্ ১১১ বম্বারের মেশিনগান পোস্টে এক জার্মান সৈন্য। নিচে পোল্যান্ডের একটি শহর। source: Stempka/United States Library of Congress

জুরা নদী পার হচ্ছে দুটি জার্মান ট্যাংক। এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে চলে The Battle of Bzura; source: Klaus Weill

মধ্য পোল্যান্ডের শহর পেবিয়ানিসে যাওয়ার পথে রাস্তার পাশে খুঁড়ে রাখা পরিখায় বিশ্রাম নিচ্ছে অ্যাডলফ হিটলার ডিভিশনের কিছু জার্মান সৈন্য, সামনে অপেক্ষপমান এক ধ্বংস নগর; source: historyinfotos.com

সর্বডানে দণ্ডায়মান জার্মান সম্মিলিত সামরিক বাহিনী ওয়্যারমাখ‌্টের অন্যতম ফিল্ড মার্শাল ম্যাক্সিমিলিয়ান ভন ভিচ। ফুয়েরার হিটলার তাকে পোল্যান্ড অভিযানের দায়িত্ব অর্পণ করে; source: German Federal Archive

পোল্যান্ডের আকাশ দিয়ে উড়ে যাচ্ছে জার্মান কিছু স্টুকা ডাইভ বম্বার; source: Kliem/German Federal Archive

পোল্যান্ডের রাস্তায় জার্মান লুফট‌্ভাফের বোমাবর্ষণ; source: United States Library of Congress

ব্রিটিশ রাজকীয় নৌবাহিনীর ডুবোজাহাজ এইচএমএস অক্সলে; source: Arkivi/Getty Images

ওয়ারশর অপেরা হাউসের সামনে উদ্বাস্তু হয়ে পড়া এক পোলিশ পরিবার; source: Julien Bryan/United States Holocaust Memorial Museum

পোল্যান্ডে এক বিমানঘাঁটিতে অপেক্ষমাণ কিছু জার্মান ফাইটার বিমান; source: Rübelt/German Federal Archive

এক সারিতে কিছু ডাইভ বম্বার; source: Heinrich Hoffmann/German Federal Archive

মহাযুদ্ধের পরিণতি- দশ বছরের কাজিমিয়েরা মিকা তার সদ্যমৃত বোনকে ধরে কাঁদছে। মিকার বোন যখন ক্ষেত থেকে আলু তুলছিল, তখন জার্মান যুদ্ধবিমান থেকে মেশিনগানের নির্দয় গুলি তার জীবন প্রদীপ নিভিয়ে দেয়। এই হৃদয়বিদারক ছবিটি ফটোগ্রাফার জুলিয়েন ব্রায়ান ১৩ সেপ্টেম্বর তার ক্যামেরায় ধারণ করেন; source: Julien Bryan/historyinfotos.com

মিকাকে সান্ত্বনা দিচ্ছেন জুলিয়েন ব্রায়ান; source: ww2db.com

পোল্যান্ডের শহরে যুদ্ধরত কিছু জার্মান সৈন্য; source: Wagner/German Federal Archive

অন্যদিকে জার্মান আগ্রাসন থেকে মাতৃভূমিকে রক্ষায় যুদ্ধরত পোল্যান্ডের সৈনিকেরা; source: otofun.net

পোল্যান্ডের কোনো এক শহরে জার্মান প্যাঞ্জার ডিভিশনের অগ্রবর্তী দল; source: historyinfotos.com

সতর্ক পদক্ষেপে জার্মান পদাতিক বাহিনীর কিছু সৈনিক; source: historyinfotos.com

ঘোড়ার পিঠে সওয়ার জার্মান সৈন্য; source: German Federal Archive

পুড়ছে ওয়ারশ শহর; source: German Federal Archive

পোলিশ শরণার্থী; source: ww2db.com

আর যারা পালাতে পারেনি সেসব বেসামরিক নিরীহ পোলিশরা এভাবেই হাত উঁচু করে যুদ্ধবন্দিত্ব বরণ করে নেয়। তাদের বেশিরভাগকেই পরবর্তীতে জোরপূর্বক কাজ করানো হয়; source: historyinfotos.com

যুদ্ধবন্দী যে কেবল পোল্যান্ডের মানুষই হয়েছে, তা কিন্তু না; কিছু জার্মান সৈন্যও যুদ্ধের সময় পোলিশদের হাতে বন্দিত্ববরণ করে, যদিও সেটা ছিল অল্প সময়ের জন্য; source: historyinfotos.com

জার্মান সৈন্যদের কব্জায় আসে পোল্যান্ডের ট্যাংক বহনকারী একটি আর্মার্ড ট্রেন; source: United States Library of Congress

১৭ সেপ্টেম্বর- আয়ারল্যান্ড উপকূলে জার্মান ডুবোজাহাজ ইউ-২৯ কর্তৃক টর্পেডোর আঘাতে ডুবে যাচ্ছে ব্রিটেনের বিমানবাহী রণতরী HMS Courageous; ইউবোটের ছোড়া তিনটি টর্পেডোর দুটি রণতরীর পোর্ট সাইডে আঘাত করে। মাত্র ২০ মিনিটে পানিতে তলিয়ে যায় জাহাজটি; সাথে মারা যায় জাহাজে থাকা ৫১৮ জন মানুষ; source: Imperial War Museums

জার্মান আর্টিলারির ছোড়া গোলায় পুড়ছে পোল্যান্ডের রাজকীয় প্রাসাদ; source: Wikimedia Commons

১৭ সেপ্টেম্বর- ওয়ারশের রাজকীয় প্রাসাদে আগুন নেভানোর চেষ্টা; source: ww2db.com

সর্ববামে- ১৭ সেপ্টেম্বর পোল্যান্ডের পূর্ব সীমান্ত দিয়ে সোভিয়েত সৈন্যরা আক্রমণ চালায়; source: ww2db.com। মাঝে- পোল্যান্ডের লভিভ শহরের পতনের পর সেখানে সোভিয়েত অশ্বারোহী বাহিনীর কুচকাওয়াজ; source: Radianska Pravda। সর্বডানে- পূর্ব ফ্রন্টে সোভিয়েত উপস্থিতি; source: polskieradio.pl । edited by writer

২২ সেপ্টেম্বর পোল্যান্ডের লুবলিনে সোভিয়েত সেনাবাহিনীর আর্মার্ড কার বিএ-১০ এর সামনে কিছু জার্মান সৈন্য; source: Höllenthal/German Federal Archive

৭.৯ মিলিমিটার ক্যালিবারের ভারি মেশিনগান নিয়ে ওয়ারশে জার্মান বিমান শিকারের অপেক্ষায় পোল্যান্ডের সৈন্যরা; source: ww2db.com

ডানজিগে জার্মান হসপিটাল শিপ ভিলহেল‌্ম্ গুস্টলফ। ১৯৪৫ সালে এই জাহাজটি সোভিয়েত ইউনিয়নের হামলায় ধ্বংস হয়; source: Hans Sönnke/German Federal Archive

২৫ সেপ্টেম্বর- জার্মান বিভীষিকায় ওয়ারশ শহরের ধ্বংস হয়ে যাওয়ার নীরব সাক্ষী ভিস্টুলা নদী; source: Benno Wundshammer/German Federal Archive

জার্মান আক্রমণে ধ্বংসপ্রাপ্ত একটি সেতু। এই ছবির মতো দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের কিছু ছবি পরবর্তীতে রঙিন করা হয়; source: Hugo Jaeger

ওয়ারশে জার্মান হানাদার বাহিনীর প্রবেশ দেখছে হতবিহ্বল পোলিশরা; source: otofun.net

২৮ সেপ্টেম্বর পতন হয় ওয়ারশ শহরের। জার্মান জেনারেল ব্লাস্কোভিত‌্সের কাছে আত্মসমর্পণ করে করে সেখানকার পোলিশ সৈন্যরা; source: German Federal Archive

ওয়ারশ শহরের পতনের পর সেখানে মার্চ করে ঢুকছে জার্মান সৈন্যরা; source: Hugo J.ger/United States National Archives

ওয়ারশ যেন এক ধ্বংসলীলার শহর; source: Hugo Jaeger

মহাযুদ্ধের নিঃস্ব সন্তান- একটুখানি যুদ্ধবিরতি, আপাতত হবে না কোনো বিমান আক্রমণ; তাই এই ফাঁকে শিশুটি এসেছিল এখানে, যেখানে একসময় তার বাড়ি ছিল, ছিল পরিবার, ছিল সব, তার হারিয়ে যাওয়া শৈশব; source: Julien Bryan/historyinfotos.com

পোল্যান্ডের ব্রেস্ট শহরে (বর্তমানে এটি বেলারুশের অন্তর্গত) লালফৌজ কমান্ডার ভ্লাদিমির বরোভিত‌্স্কি ও জার্মান জেনারেল হাইঞ্জ গুডেরিয়ান পোল্যান্ডে তাদের নিজ নিজ এলাকার সীমানা নির্ধারণ করছে। জার্মানি ও সোভিয়েত সেনারা ১৮ সেপ্টেম্বর এই শহরের কাছাকাছি মিলিত হয়; source: German Federal Archive

মোটা দাগে দখলকৃত পোল্যান্ডের সীমানা নির্ধারণকারী আঞ্চলিক মানচিত্র। এখানে জোসেফ স্তালিনের স্বাক্ষর আছে; source: Yale Law School Avalon Project

৫ অক্টোবর, ১৯৩৯- জার্মান ওয়্যারমাখ‌্টের পোল্যান্ড দখল করে নেওয়া উপলক্ষে আয়োজিত সামরিক কুচকাওয়াজে অভিবাদন গ্রহণ করছে ফুয়েরার হিটলার; source: Mensing/German Federal Archive

ফিচার ইমেজ – Edited by writer