কে জিততে চলেছে এবারের ক্যান্ডিডেটস টুর্নামেন্ট? || পর্ব ১

টিক, টিক, টিক। সময় এবং স্রোত কারও জন্য অপেক্ষা করে না- এই বাণীকে সত্য প্রমাণ করে দেখতে দেখতে অষ্টম ক্যান্ডিডেটস টুর্নামেন্ট শুরু হলো বলে। গত বছরের মার্চে হওয়ার কথা থাকলেও করোনার থাবাতে টুর্নামেন্টের মাঝপথে পেছাতে বাধ্য হয়। শেষে কয়েক দফা পিছিয়ে এবছরের এপ্রিলে থিতু হয়েছে। ভেন্যু আগেরটাই, রাশিয়ার ইয়াকাতেরিনবার্গ। দাবার মর্যাদাপূর্ণ এ আসরের ইতিহাস নিয়ে আগে একটা আর্টিকেলে আলোচনা করা হয়েছিল। আজকে কথা হবে এবারের হট ফেবারিট কে বা কারা! সম্ভাব্য বিজয়ী হতে পারেন কে/কারা, বাকিদের আদৌ ম্যাচে ব্যাক করার চান্স আছে কিনা- এসব নিয়ে এই নিবন্ধে আলোচনা করবো আমরা। 

গত মার্চে ক্যান্ডিডেটস টুর্নামেন্টের প্রথম সাত রাউন্ড খেলা চলার পর করোনার কারণে পরের সাত রাউন্ড পিছিয়ে দেয়া হয়। সাত রাউন্ড শেষে দেখা যায়, ফরাসি মাক্সিম ভাশিয়ার ল্যাগ্রাভ এবং ইয়ান নেপমনিয়াশি যৌথভাবে প্রথম স্থান ধরে রেখেছেন ৭ এর মধ্যে ৪.৫ স্কোর নিয়ে। এমতাবস্থায় পুরো এক বছর অপেক্ষার পর এখন টুর্নামেন্টের বাকি রাউন্ডগুলো আয়োজনে ফিদে প্রস্তুত, ১৩ এপ্রিল এক সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই বলেন সংস্থার প্রেসিডেন্ট আরকাজি ভোরকোভিচ। সেই প্রেস কনফারেন্সেই সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আনাতোলি কারপভ জানান, প্রথম পর্বের সাত রাউন্ডের পর বিরতির নির্দেশ স্বয়ং পুতিনের কাছ থেকেই এসেছিল। তার ভাষ্যমতে ভ্লাদিমির ভ্লাদিমিরোভিচ (পুতিন) নিজেই কল করেছিলেন। সুদীর্ঘ ১৩ মাস বিরতির পর ১৯ থেকে ২৮ এপ্রিল- পরের সাত রাউন্ড শেষ হবে। সূচি:

গত বছর এবং এবছর মিলিয়ে ক্যান্ডিডেটস টুর্নামেন্টের পূর্ণাঙ্গ শিডিউল এবং সম্পন্ন গেমগুলোর ফলাফল; Image Courtesy: Chess.com

নিয়মকানুন

কার গলায় বিজয়ীর মালা উঠতে যাচ্ছে সে আলোচনার আগে ক্যান্ডিডেটস টুর্নামেন্ট সংশ্লিষ্ট নিয়মকানুন জেনে নিই। ফিদের পুরো রেগুলেশন পাবেন এখানে, শুধু জরুরিগুলো তুলে ধরা হলো: 

  • পুরো টুর্নামেন্টটি হবে ডাবল রাউন্ড রবিন, সর্বমোট ১৪ রাউন্ড। টুর্নামেন্ট বিজয়ী ম্যাগনাসের সাথে বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপ ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতার যোগ্যতা অর্জন করবেন, যেটি আয়োজিত হবে এ বছরের নভেম্বরে দুবাইয়ে। 
  • টাইম কন্ট্রোল হবে প্রথম ৪০ চালের জন্য ১০০ মিনিট, পরের ২০ দানের জন্য ৫০ মিনিট এবং সবশেষে ১৫ মিনিট থাকবে বাকি খেলা শেষ করার জন্য, এবং প্রতি মুভে ৩০ সেকেন্ড করে ইনক্রিমেন্ট হবে প্রথম চাল থেকেই।
  • কালো ঘুঁটির চল্লিশ চালের আগ পর্যন্ত খেলোয়াড়গণ ড্রতে সম্মত হতে পারবেন না। তবে এর আগে ড্র হতে পারবে শুধুমাত্র থ্রি-ফোল্ড রেপিটিশন এর দ্বারা। 
  • প্রতিটি জয় ১ পয়েন্ট, ড্র ১/২ পয়েন্ট এবং হার ০ পয়েন্ট হিসেবে গণ্য হবে। 
  • টুর্নামেন্ট শেষে যদি দুই বা ততধিক খেলোয়াড় একই পয়েন্টে উপনীত হন, সেক্ষেত্রে টাই-ব্রেক নির্ধারণের নিয়ম হবে এমন: 
    • উক্ত খেলোয়াড়দের নিজেদের মধ্যকার গেমের ফলাফল
    • পুরো টুর্নামেন্টে তাদের জয়ের সংখ্যা
    • সোনবর্ন-বার্গার সিস্টেম 
  • যদি দুজন দাবাড়ু প্রথম স্থানের জন্য টাই করেন, সেক্ষেত্রে তাদের র‍্যাপিড এবং ব্লিটজ টাইব্রেকের মাধ্যমে উইনার এবং রানার আপ নির্ধারিত হবে। 
সাত রাউন্ড শেষে পয়েন্ট তালিকা; Image Courtesy: Chess.com

প্রাইজমানি 

ক্যান্ডিডেটস টুর্নামেন্ট ২০২০-২১ এর সর্বমোট প্রাইজমানি ৫,০০,০০০ ইউরো (প্রায় ৫,৫৭,৭২০ ডলার)। এই অর্থমূল্য সবধরনের স্থানীয় শুল্কমুক্ত অর্থাৎ এর উপর দাবাড়ুদের কোনো ট্যাক্স দিতে হবে না। পুরো টুর্নামেন্ট বিজয়ী পাবেন ৪৮,০০০ ইউরো। রানার-আপ পাবেন ৩৬,০০০ ইউরো এবং তৃতীয় স্থান অর্জনকারী পাবেন ২৪,০০০ ইউরো। এছাড়াও প্রতিযোগীগণ প্রতি হাফ পয়েন্টের জন্য ৩,৫০০ ইউরো করে পাবেন।   

ধারাভাষ্যকক্ষে তারার মেলা 

কমেন্ট্রিবক্সে আক্ষরিক অর্থেই তারার হাট বসছে এবার। ফিদের অফিসিয়াল ধারাবিবরণীতে থাকবেন রুশ গ্র্যান্ডমাস্টার দানিয়েল দুবভ, যিনি তার স্যাক্রিফাইসিং-রোমান্টিক-অ্যাটাকিং খেলার ধাঁচের কারণে হালের মিখাইল তাল নামে ভক্তকূলের মাঝে পরিচিত। অনেকে তাকে তালের ব্রেইন-চাইল্ডও বলে থাকেন। এছাড়া চেস ডট কমের কমেন্ট্রিবক্সে থাকবেন এককালের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন বিশ্বনাথন আনন্দ।

অতিথি হিসেবে বর্তমানে কার্লসেনের ত্রাস মার্কিন জিএম ওয়েসলি সো এবং লেভন অ্যারোনিয়ানও থাকবেন বলে জানা গেছে। তবে আসল চমক এখানেই শেষ নয়, চেস২৪-এর ধারাভাষ্যকক্ষে যে থাকবেন স্বয়ং বর্তমানের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ম্যাগনাস কার্লসেন! তারার মিলনমেলার দিক থেকে চেস২৪ বাকি সবাইকে পেছনে ফেলেছে। তাদের টিমে ম্যাগনাসের সাথে আরও আছেন অবিসংবাদিতভাবে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মহিলা দাবাড়ু জুডিত পোলগার। ব্রিটিশ চ্যাম্পিয়ন ডেভিড হাওয়েল এবং ভারতের মহিলা দাবার চ্যাম্পিয়ন তানিয়া সাচদেবও থাকছেন চেস২৪-এর কমেন্ট্রিবক্সে।  

চেস২৪ এর কমেন্ট্রিবক্সে তারার মিলনমেলা; Image Courtesy: Chess24

একনজরে প্রতিদ্বন্দ্বীগণ

অষ্টম ক্যান্ডিডেটসে লড়ছেন আট দাবাড়ু- মার্কিন দাবাড়ু ফাবিয়ানো কারুয়ানা (বিশ্বর‍্যাঙ্কিং ২), চীনা ডিং লিরেন (বিশ্বর‍্যাঙ্কিং ৩), রুশ ইয়ান নেপোমনিয়াশি (বিশ্বর‍্যাঙ্কিং ৪), আরেক রুশ অ্যালেক্সান্ডার গ্রিশচুক (বিশ্বর‍্যাঙ্কিং ৬), ডাচ দাবাড়ু আনিশ গিরি (বিশ্বর‍্যাঙ্কিং ৭), আরেক চাইনিজ ওয়াং হাও (বিশ্বর‍্যাঙ্কিং ১২), ফরাসি মাক্সিম ভাশিয়ার ল্যাগ্রাভ (বিশ্বর‍্যাঙ্কিং ১৫) এবং ওয়াইল্ড কার্ডধারী রুশ দাবাড়ু কিরিল আলেকসেঙ্কো (বিশ্বর‍্যাঙ্কিং ৪১)। প্যান্ডেমিক চলাকালীন গত এক বছরে তাদের ফর্ম এবং আনুসাঙ্গিক টুকিটাকি বিষয়াদি চট করে জেনে আসি চলুন- 

মাক্সিম ভাশিয়ার ল্যাগ্রাভ-এমভিএল (বয়স ২৯) (রেটিং ২৭৬৭)

এবারের ক্যান্ডিডেটসে সাত রাউন্ড শেষে ফরাসি এই দাবাড়ু ৪.৫ পয়েন্ট নিয়ে বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছেন, এটিই তার প্রথম ক্যান্ডিডেটস। প্রথম পর্ব শেষ হওয়ার পর এই ১৩ মাসে এমভিএল ৫৪৬ টি অফিশিয়াল গেম খেলেছেন, যার মধ্যে মাত্র ১৮টি সরাসরি বোর্ডে। মাক্সিম গত সেপ্টেম্বরের বুন্দেসলিগায় +৩ স্কোর করেন যা বেশ দারুণ ফর্মের ইঙ্গিত দেয়, কিন্তু ছন্দপতন ঘটে টাটা স্টিল চেস টুর্নামেন্টে। ১৩ এর মধ্যে মাত্র ৫ পয়েন্ট অর্জন করেন তিনি, চারটি হারের মধ্যে আবার দুটি কিনা এবারের ক্যান্ডিডেটসের প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিরুদ্ধে। সে হিসেবে অনলাইন দাবায় তার ফলাফল তুলনামূলক ভালো। অনলাইন নেশন্স কাপে নেপোমনিয়াশিকে এবং অপেরা ইউরো র‍্যাপিডে ম্যাগনাস কার্লসেনকেও বাড়ির টিকিট ধরিয়ে দিয়েছিলেন এই ফরাসি! যদিও অন দ্য বোর্ড চেস তাকে ভোগাবে কিনা সেটি এখনও সন্দেহমুক্ত নয়, তারপরও সব মিলিয়ে বেশ আশা জাগানিয়া পরিস্থিতিতে রয়েছেন মাক্সিম ভাশিয়ার ল্যাগ্রাভ। 

বর্তমানে ক্যান্ডিডেটসে লিড দিচ্ছেন এই দুই দাবাড়ু; Image Courtesy: Maria Emelianova/Chess.com

ইয়ান নেপোমনিয়াশি (বয়স ২৭) (রেটিং ২৭৭৪)

এমভিএলের সমান পয়েন্ট নিয়ে তালিকার দ্বিতীয় পজিশনটি ইয়ান নেপোমনিয়াশির দখলে। ফিদে গ্র্যান্ড প্রিক্স ২০১৯ এর রানার আপ হয়ে এবারে তার প্রথম ক্যান্ডিডেটস খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছেন নেপো। গত এক বছরে ৪৮২ গেম খেলেছেন তিনি, যার সিংহভাগই অনলাইনে। দুঃখজনকভাবে টাটা স্টিলে এবার খেলতে পারেননি, সেকারণে রাশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপেই কেবলমাত্র অন দ্য বোর্ডে খেলতে পেরেছেন নেপো। তবে সেই টুর্নামেন্ট জয় নিশ্চয়ই ভালো ভাইব দেবে তাকে। যদিও মেজর অনলাইন দাবার মধ্যে লিজেন্ডস অফ চেস-এ ম্যাগনাসের কাছে হার এবং কদিন আগে ম্যাগনাস কার্লসেন ইনভিটেশনালের ফাইনালে গিরির কাছে হারটা দগদগে ক্ষতের মতোই থাকবে তার কাছে। তবে ২০১৬ সালের ক্যান্ডিডেটস বিজয়ী সার্গেই কারিয়াকিন তাকেই ফেবারিট মেনেছেন, বলেছেন বাকি সবার মধ্যে নেপো শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী হবে কার্লসেনের জন্য।

ফাবিয়ানো কারুয়ানা (বয়স ২৭) (রেটিং ২৮৪২)

২০১৮ বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে কার্লসেনের কাছে হেরে এই ক্যান্ডিডেটসে অটোমেটিক স্পট পেয়েছেন ফাবিয়ানো কারুয়ানা। গত আসরের বিজয়ী কারুয়ানা এবারেও শুরু থেকেই ছিলেন হট ফেবারিট। ফাবি ২০১৬ ক্যান্ডিডেটসে সার্গেই কারিয়াকিনের পেছেনে থেকে দ্বিতীয় স্থান নিয়ে টুর্নামেন্ট শেষ করেন। সে হিসেবে বাকিদের থেকে অভিজ্ঞতায় এগিয়েই থাকবেন মার্কিন এই জিএম। গত এক বছরে বাকিদের তুলনায় কম গেম খেলেছেন ফাবি (৩১৩ গেম), কিন্তু ওভার দ্য বোর্ড খেলায় কিন্তু তিনিই বাকি সবার থেকে এগিয়ে। ক্যান্ডিডেটসের ১ নভেম্বর যে পরিবর্তিত সময় নির্ধারিত হয়েছিল, সেটি পেছাবে কি না এই বিড়ম্বনায় থাকা অবস্থায় নরওয়ে চেস-এ চতুর্থ স্থান অর্জন করেছেন তিনি। এরপর টাটা স্টিলে অপরাজিত অবস্থায় ৮/১৩ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় হন, যেখানে এমভিএলের বিপক্ষেও একটি জয় ছিল। বোর্ডের খেলায় তাই ভালো ফর্মেই আছেন ফাবি।

ফাবি নিশ্চয়ই ২০১৮ ক্যান্ডিডেটসের এই ছবির পুনরাবৃত্তিই করতে চাইবেন; Image Courtesy: FIDE

যদিও অনলাইন দাবায় তার ফর্ম কিছুটা দ্বিধাবিভক্ত, ক্লাচ-চেস চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ওয়েসলি সো এবং ম্যাগনাসের কাছে হার দুটো সম্ভবত ভুলে জেতেই চাইবেন এই মার্কিন। এরপর স্পিড চেস চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম রাউন্ডেই ইয়ান ক্রিস্তফ দুদার কাছে হেরে বিদায় নেন তিনি। এত কিছু সত্ত্বেও, ভক্তরা আশায় বুক বেধে রাখবেন এটা নিশ্চিত; ফিশার-উত্তরকালে মার্কিন মুলুকে দাবার রাজমুকুট ফিরিয়ে আনা যে কারুয়ানাতেই দেখেছিল তারা। দ্বিতীয় পর্বে ঘুরে দাঁড়াবেন ফাবি, এমনটাই তার ভক্তদেরও দাবি।

প্রিয় পাঠক, আমরা বিশ্লেষণের মাঝপথে আছি। আগামী পর্বে আমরা দেখবো টুর্নামেন্টের মধ্যগগণে পয়েন্ট তালিকা কী বলে, ২০১৬ ক্যান্ডিডেটসের বিজয়ী কারিয়াকিন কাকে ফেবারিট বলছেন, আর পূর্বের কয়েকটি ক্যান্ডিডেটস টুর্নামেন্টের আলোকে এবারের সম্ভাব্য ফলাফল কী হতে পারে এবং যারা পিছিয়ে পড়েছেন তারা কি আদৌ ম্যাচে ফিরতে পারবেন? এই সব কিছু আলোচনা করবো আমরা দ্বিতীয় এবং শেষ পর্বে, আমাদের সাথেই থাকুন। আর ১৯ তারিখ বাংলাদেশ সময় বিকেল পাঁচটা থেকে ক্যান্ডিডেটস টুর্নামেন্ট শুরু হচ্ছে, সেটায় অতি অবশ্যই চোখ রাখুন!

Related Articles