অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের জন্য বৈচিত্র্যময় সাতটি অ্যাপ

একবিংশ শতাব্দীতে প্রযুক্তির বাজারে যতগুলো প্রযুক্তি পণ্যের উন্মোচন হয়েছে, তাদের মাঝে মাইলফলক হয়ে আছে স্মার্টফোন। নিত্য নতুন মডেলের সব স্মার্টফোন এখনো বাজার মাতিয়ে রেখেছে। স্মার্টফোনগুলোতে দিন দিন সৌন্দর্যের সাথে সংযুক্ত হয়েছে অসাধারণ সৃজনশীল সব বৈশিষ্ট্য। হয়তো কোনো একদিন স্মার্টফোনের বাজার থাকবে না, হয়তো স্মার্টফোন থেকেও আরো উন্নত কিছু এসে স্মার্টফোনের বাজারটি পুরোপুরি দখল করে নেবে।

এই স্মার্টফোনকে ঘিরেই প্রযুক্তিবাজারে অবমুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন সব অ্যাপ্লিকেশন। অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোডের জন্য রয়েছে অনেকগুলো স্টোর, এর মধ্যে গুগলের প্লে স্টোর অত্যন্ত জনপ্রিয় অবস্থানে রয়েছে। প্লে স্টোরে অবমুক্ত হওয়া দারুণ কিছু অ্যাপ নিয়েই আজকের এই লেখাটি।

Datally

Source: youtube.com

স্মার্টফোনগুলোতে সেলুলার ডাটা কিংবা ওয়াই-ফাই-কে কেন্দ্র করে কাজ করে এমন শ’খানেক অ্যাপ পাওয়া যাবে প্লে স্টোরে। এমনি একটি অ্যাপ হলো এই ডাটালি, এর সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হলো এর ডেভেলপার গুগল নিজেই। গুগলের তৈরি অ্যাপগুলোর প্রশংসা না করে পারা যায় না, কোনো প্রশ্ন ছাড়াই সেই অ্যাপের উপর নির্ভর করা যায়। সেলুলার ডাটা নিয়ে একজন ব্যবহারকারীর সমস্যাগুলো সমাধান করতেই গুগল এই অ্যাপটি ডেভেলপ করেছে।

Source: blog.google

অ্যাপটির প্রধান কাজ হলো সেলুলার ডাটা ব্যবহারকে নিয়ন্ত্রণ করা এবং পরিপার্শ্বস্থ নির্ভরযোগ্য ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্ক খুঁজে বের করা। এর সাহায্যে আপনি দৈনিক কিংবা নির্দিষ্ট সময় সীমার মাঝে ব্যবহারের জন্য নির্দিষ্ট পরিমাণ ডাটা লিমিট তৈরি করে রাখতে পারবেন। সেলুলার কোম্পানিগুলো ডাটা প্যাক শেষ হবার সঙ্গে সঙ্গে মূল ব্যালেন্সের টাকা কাটতে শুরু করে। এই সমস্যা থেকে বাঁচতে সাহায্য করবে এই অ্যাপ।

Source: mobilesyrup.com

এছাড়াও আপনার স্মার্টফোনে ইন্সটলকৃত কোন অ্যাপগুলো আপনার অগোচরে ডাটা ব্যবহার করছে, এই অ্যাপটি তারও একটি তালিকা দেখাবে আপনাকে। দেখা গেলো, আপনি কেবলমাত্র মেসেঞ্জার ব্যবহার করতে দশ মেগাবাইট ডাটা প্যাক কিনলেন, কিন্তু স্মার্টফোনের বাকি সকল অ্যাপ নিমিষেই এই ডাটা প্যাক শেষ করে ফেললো। এই সমস্যা এড়াতে ডাটালি অ্যাপে আপনি নির্দিষ্ট অ্যাপকে ব্লক করে দিয়ে ডাটা ব্যবহার থেকে বিরত রাখতে পারবেন।

Cerberus Personal Safety

Source: androidpolice.com

প্রশ্ন যখন আসে ব্যক্তিগত নিরাপত্তা নিয়ে, তখন কেউ-ই ঝুঁকি নিতে চান না। বিজ্ঞান আর প্রযুক্তির উন্নয়নের সাথে সাথে বেড়েছে জীবনের নিরাপত্তাহীনতা। তাই সবসময় আমাদের সাবধান থাকতে হয়। কিন্তু বিপদ কখন কোনদিক থেকে এসে হাজির হবে তা-ও কারো জানবার নয়। সারবারাস পার্সোনাল সেইফটি নামক অ্যাপটি আপনাকে হয়তো বিপদের সমাধান দিতে পারবে না, তবে আপনার পূর্ব নির্ধারিত মানুষদের এক মুহূর্তের মাঝে জানিয়ে দিতে পারবে আপনার বিপদের কথা। বিপদে যোগাযোগের জন্য কোনো বন্ধু কিংবা পরিবারের এক বা একাধিক সদস্যের সাথে এসএমএস, ইমেইল, টুইট কিংবা ফেসবুকের মাধ্যমে যোগাযোগের ব্যবস্থা আপনি আগেই ঠিক করে রাখতে পারবেন। আপনার এক ক্লিকেই মুহূর্তের মাঝে আপনার অবস্থানের তথ্য পৌঁছে যাবে নির্ধারিত মানুষের কাছে। অপর পাশের মানুষেরা ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত আপনার লোকেশন দেখতে পারবেন, যদি আপনার স্মার্টফোনে অ্যাপটি বন্ধও করে দেওয়া হয়, তবু আপনার লোকেশন নির্ধারিত মানুষেরা দেখতে সক্ষম হবেন।

Files Go

Source: youtube.com

চলতি মাসের শুরুর দিকে এই অ্যাপটির বেটা ভার্সন উন্মুক্ত করা হয়েছিলো, তবে বর্তমানে স্থায়ী ভার্সন উন্মুক্ত করা হয়েছে। ফাইল ম্যানেজমেন্টের জন্য প্লে স্টোরে অ্যাপের অভাব নেই, তবে স্মার্টফোনে প্রাথমিকভাবে থাকা ফাইল ম্যানেজার ব্যবহারেই মানুষ স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে থাকে। নিত্যনতুন প্রায় সকল সেক্টরেই গুগল আত্মনিয়োগ করে চলেছে, ফাইল ম্যানেজমেন্টই বা বাদ যাবে কেন। গুগলের প্রস্তুতকৃত এই ম্যানেজারটিতে বাড়তি কিছু ফিচারও রাখা হয়েছে।

Source: 9to5google.com

অ্যাপের ইন্টারফেসটিও যথেষ্ট সুবিধাজনক। ফাইল ম্যানেজমেন্টের সাথে এতে রাখা হয়েছে ফাইল শেয়ারিংয়ের মতো বৈশিষ্ট্য। ডেভেলপারদের ভাষ্যমতে, ১২৫ মেগাবিট পার সেকেন্ড স্পিডে আপনি ফাইল শেয়ার করতে সক্ষম হবেন এটির মাধ্যমে। শেয়ার ইট অ্যাপের মতো করে ওয়াই-ফাই ব্যবহার করে যেকোনো আকারের ফাইল আপনি শেয়ার করতে পারবেন অন্যান্য ব্যবহারকারীর সঙ্গে। স্মার্টফোনের ইন্টার্নাল ও এক্সটার্নাল স্টোরেজ দেখানোর সাথে সাথে কোন কোন অপ্রয়োজনীয় ফাইল ডিলিট করে আপনি জায়গা খালি করতে পারবেন, সেই ব্যাপারেও আপনাকে পরামর্শ দেবে এটি। এছাড়াও যদি কোনো একটি ফাইল দুই জায়গায় থেকে থাকে, এই অ্যাপটি সেটিও দেখাবে আপনাকে।

Contacts

Source: fonedog.com

আবারো গুগলের অ্যাপের বর্ণনা। গুগল এমন সুন্দরভাবে অ্যাপ ডিজাইন করে যে, দেখতেও সুন্দর লাগে, আবার ব্যবহারেও ভরসাযোগ্য, শান্তিমতো ব্যবহার করা যায়। স্মার্টফোনের ‘কনটাক্ট’গুলো গুগলের কনটাক্ট সার্ভিসে ব্যাকআপ রাখা যেতো বহু আগে থেকেই। সেই ব্যাকআপকে নানাভাবে ব্যবহার করা যেতো, স্মার্টফোন হারিয়ে গেলে কিংবা ফোন পরিবর্তন করলেও কনটাক্ট নিয়ে ভাবতে হতো না। গুগলের এই কনটাক্ট সার্ভিসটি আগে ব্যবহার করতে হতো ওয়েবসাইটের সাহায্যে।

Source: firstpost.com

আরো সহজ উপায়ে যাতে এটি ব্যবহার করা যায় সেই লক্ষ্যেই কনটাক্ট সার্ভিসটিকে অ্যাপভিত্তিক করেছে গুগল। আপনি আপনার ফোনের সমস্ত কনটাক্টের ব্যাকআপ রাখতে পারবেন গুগলে। এই অ্যাপের সাহায্য আপনার স্মার্টফোন সহ গুগলে ব্যাকআপ করে রাখা কনটাক্টগুলো পৃথকভাবে দেখতে পারবেন।

Duet

Source: youtube.com

অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের চেয়ে অন্যান্যা প্ল্যাটফর্মগুলোর গেইমে প্রচুর ফিচার থাকে, খেলার আনন্দটাও তাই বেশি। কিন্তু এই গেইমটি একটু ভিন্ন ধারার। ‘ভিন্ন ধারা’ কথাটি উল্লেখ করে প্রচুর গেইমের নাম নেওয়া হয়, কিন্তু আপনি বিশ্বাস করে এই গেইমটি খেলে দেখতে পারেন, হতাশ হতে হবে না। গেইমটি যেমন বৈচিত্র্যময়, তেমনি প্রচণ্ড কঠিন। আপনি যদি আপনার স্নায়ু টান টান করে পূর্ণ মনোযোগ দিতে না পারেন, তাহলে গেইমটি খেলতে পারবেন না।

Source: androidpolice.com

যদি একেবারেই না পারেন খেলতে, তাহলে বুঝতে হবে আপনি একদিকে মনোযোগ ধরে রাখতে পারছেন না। দৈনন্দিন কাজকর্মে মনোযোগ একদিকে ধরে রাখতেও সহায়তা করবে গেইমটি। গেইমের শুরুতেই কীভাবে খেলতে হবে সেই ব্যাপারে শিখিয়ে দেওয়া হবে, সুতরাং এ নিয়ে ভাবতে হবে না।

Flyperlink

Source: youtube.com

এই অ্যাপটির নামেই তার কাজের পরিচয় রয়েছে। যেকোনো ধরনের ওয়েব অ্যাড্রেস অর্থাৎ লিংকে এই অ্যাপটি উড়ে যাবার ব্যবস্থা করে দেয়। ভয় পাবেন না, উড়ে দূরে কোথাও চলে যাবে না। স্মার্টফোনে কোনো একটি অ্যাপে কাজ করবার সময় যদি কখনো কোনো ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হয়, তখন উক্ত অ্যাপটি মিনিমাইজ করে রেখে আমাদের যেতে হয় ওয়েব ব্রাউজারে।

Source: greenbot.com

এই সমস্যা থেকেই মুক্তি দেবে অ্যাপটি। আপনি যেকোনো লিংকে ক্লিক করলেই ম্যাসেঞ্জারে চ্যাটহেড-এর মতো একটি ভাসমান ওয়েব ব্রাউজার সামনে আসবে, আর ওতেই চালু হবে ওয়েবসাইটটি। এটি সম্পূর্ণ ভিন্ন ধারার এক ওয়েব ব্রাউজার।

On Second Thought SMS

Source: onsecondthought.co

এসএমএস করার জন্য স্মার্টফোনের ডিফল্ট অ্যাপটিকেই সবাই ব্যবহার করে থাকে, দ্বিতীয় আর কোনো অ্যাপ ব্যবহারের কথা খুব একটা ভাবে না কেউ। তবে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ম্যাসেঞ্জার অ্যাপে এই সুবিধা আনার পর কেউ কেউ হয়তো ব্যবহার করে থাকবেন। অবশ্য এসএমএস এর জন্য ডিফল্ট অ্যাপটিকে প্রতিস্থাপন করতে সক্ষম কোনো অ্যাপ উন্মুক্ত হয়নি।

এখানে আলোচ্য অ্যাপটি খানিকটা ভিন্ন ধারার, এর একটি বিশেষ বৈশিষ্ট্য একে ভিন্ন করে তুলেছে। মাঝে মাঝেই দেখা যায় যে, ম্যাসেজ সেন্ড করে দেবার পর মনে হয় কিছু পরিবর্তন করা প্রয়োজন। কিন্তু তা আর সম্ভব হয় না, কেননা মুহূর্তের মাঝেই পৌঁছে গেছে ম্যাসেজটি। এই জটিলতা থেকে মুক্তি দেবার উপায় নিয়ে এসেছে অ্যাপটি। ম্যাসেজ লিখে সেন্ড বোতাম চাপার পর একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত আপনি চাইলে সেটি ক্যান্সেল করে দিতে পারবেন, পরিবর্তন-পরিবর্ধন করে নিতে পারবেন আপনার ম্যাসেজটি।

ফিচার ইমেজ: marketingland.com

Related Articles