ইতিহাসের এই দিনে: বিদায়বেলায় ব্রেন্ডন ম্যাককালামের ব্যাটিং তাণ্ডব

ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালেতে টসে জিতে স্বাগতিক  নিউজিল্যান্ডকে প্রথমে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানায় অস্ট্রেলিয়া। রানের খাতায় ৩২ রান যোগ করতেই নিউজিল্যান্ডের টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান সাজঘরের পথ ধরেছিলেন। এমন পরিস্থিতিতে ব্যাট করতে নামেন অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। হ্যাগলি ওভালের চারপাশ করতালিতে মুখর। মাঠের একপাশে দুই সারিতে দাঁড়িয়ে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট দলও করতালি দিয়ে বাইশ গজে আমন্ত্রণ জানায় ব্রেন্ডন ম্যাককালামকে। তিনি আগে থেকেই ঘোষণা দিয়ে রেখেছিলেন সাদা পোশাকে আর নয়। ক্যারিয়ারের শেষ টেস্ট ম্যাচও শুরু করলেন স্বভাবসুলভ ভঙ্গিতে। অজি পেসারদের সামনে তার সতীর্থরা অসহায় আত্মসমর্পণ করার পরেও তিনি ক্রিজে এসেই সজোরে হাঁকালেন। বলটি ব্যাটে-বলে না হলেও তার মনোবলে চিড় ধরেনি। পরের বলে আবারও চালিয়ে খেললেন। ব্যাটের কানায় লেগে থার্ড ম্যান অঞ্চল দিয়ে চার।

কিছুক্ষণ পর মিচেল মার্শের এক ওভারে দুটি চার এবং দুটি ছয় হাঁকিয়ে জানান দিলেন শেষটা স্মরণীয় করে রাখার জন্যই ব্যাট হাতে নেমেছেন। মিচেল মার্শকে প্রথম ছয় হাঁকানোর মধ্য দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে নিজের ১০১তম ছয় হাঁকিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েন। আগের ম্যাচেই গিলক্রিস্টের শততম ছয়ের রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছিলেন। ব্যক্তিগত ৩৯ রানের মাথায় জেমস প্যাটিনসনের বলে  মিচেল মার্শের অসাধারণ ক্যাচে শিকার হয়েছিলেন। হ্যাগলি ওভালের দর্শকবৃন্দ তখন করতালি দিয়ে ব্রেন্ডন ম্যাককালামকে বিদায় জানাতে ব্যস্ত। আম্পায়ার রিচার্ড কেটেলব্রো বলটি বৈধ কি-না সেটা নিয়ে সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগছিলেন। টিভি আম্পায়ারের সহায়তায় জানতে পারলেন প্যাটিনসনের পা পপিং ক্রিজের দাগের বাহিরে। হ্যাগলি ওভালের দর্শকরা আরও একবার নড়েচড়ে বসলেন। নতুন জীবন পেয়ে ৩৪ বলে অর্ধশতক হাঁকানোর পর আরও ভয়ানক হয়ে উঠেন ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। পরবর্তী ৫০ রান পূর্ণ করতে খেললেন মাত্র ২০ বল। এতে করেই ক্যারিয়ারের শেষ টেস্টে রেকর্ড বুকে নিজের নাম লেখালেন ম্যাককালাম। শতক হাঁকাতে খেললেন মাত্র ৫৪ বল। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে বলের হিসাবে দ্রুততম শতকের রেকর্ড এটি। ১৯৮৬ সালে ভিভ রিচার্ডস এবং ২০১৪ সালে মিসবাহ-উল হক ৫৬ বলে শতক হাঁকিয়েছিলেন। তাদের পিছনে ফেলে মাত্র ৫৪ বলে শতক হাঁকিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েন ‘বাজ।’ ব্রেন্ডন ম্যাককালামের তাণ্ডবলীলা থামে সেই প্যাটিনসনের বলেই।

নাথান লায়নের দুর্দান্ত ক্যাচে সাজঘরে ফেরার আগে মাত্র ৭৯ বলে ২১টি চার এবং ছয়টি ছয়ের মারে ১৪৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন। তিনি আউট হওয়ার পর হ্যাগলি ওভালের উপস্থিত সবাই করতালি দিয়ে বিদায় জানালেন।

পুনশ্চ: ২০১৬ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া ক্রাইস্টচার্চ টেস্টের মধ্য দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছিলেন ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। ২০ ফেব্রুয়ারি ম্যাচের প্রথম ইনিংসে মাত্র ৫৪ বলে দ্রুততম টেস্ট শতক হাঁকানোর পর দ্বিতীয় ইনিংসে ২৭ বলে ২৫ রান  করেছিলেন তিনি। ব্রেন্ডন ম্যাককালামের বিদায় টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার কাছে সাত উইকেটে পরাজিত হয়েছিলো নিউজিল্যান্ড।

ফিচার ইমেজ – Twitter

Related Articles