ইএসপিএন ক্রিকইনফো অ্যাওয়ার্ড ২০১৭: স্মিথ, কোহলিদের টপকে ক্যাপ্টেন অফ দ্য ইয়ার নাইট

জনপ্রিয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো গত দশ বছরের ন্যায় এই বছরেও ২০১৭ সালের ক্রিকেটে বেস্ট পারফর্মারদের অ্যাওয়ার্ড দেয়। এবার কোনো বাংলাদেশি ক্রিকেটার অ্যাওয়ার্ড জেতেননি। গত বছর মুস্তাফিজুর রহমান টি-টুয়েন্টিতে সেরা বোলিং পারফরমেন্সের জন্য এবং মেহেদী হাসান মিরাজ ডেব্যুটান্ট অফ দ্য ইয়ারের অ্যাওয়ার্ড জিতেছিলেন।

২০১৭ সালে সেরা টেস্ট ব্যাটিং পারফরমেন্সের অ্যাওয়ার্ড জিতেছেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। পুনেতে ভারতের বিপক্ষে অপ্রত্যাশিত জয় পাওয়া ম্যাচে স্মিথ ১০৯ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছিলেন। বেস্ট টেস্ট ব্যাটিং পারফরমেন্সের অ্যাওয়ার্ড জিততে তিনি পিছনে ফেলেছেন গ্যাবা টেস্টে তার ১৪১* রানের ইনিংসটি এবং ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শাই হোপের ম্যাচ জেতানো ইনিংসটিকে। টেস্ট বোলিং অ্যাওয়ার্ড জিতেছেন নাথান লায়ন। ভারতের বিপক্ষে ৫০ রানের বিনিময়ে আট উইকেট শিকারের ফলে তিনি বেস্ট টেস্ট বোলিং পারফরমেন্সের অ্যাওয়ার্ড জেতেন। একই টেস্টে ৪১ রানের বিনিময়ে ছয় উইকেট শিকার করা আশ্বিন ছিলেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী।

ওয়ানডে ক্রিকেটের দুটি অ্যাওয়ার্ড  জিতে নেন পাকিস্তানের ফখর জামান এবং মোহাম্মদ আমির। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে অপরাজিত ১১৪* রানের ইনিংস খেলে ওয়ানডে ব্যাটিং পারফরমেন্স অফ দ্য ইয়ারের অ্যাওয়ার্ড জেতেন ফখর জামান। একই ম্যাচে দুর্দান্ত এক স্পেলে ১৬ রানের বিনিময়ে তিন উইকেট শিকার করে মোহাম্মদ আমির জেতেন ওয়ানডে বোলিং পারফরমেন্স অফ দ্য ইয়ারের অ্যাওয়ার্ড।

আন্তর্জাতিক টি-টুয়েন্টি ব্যাটিং পারফরমেন্স অফ দ্য ইয়ারের অ্যাওয়ার্ড জেতেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের এভিন লুইস। ভারতের বিপক্ষে তার ১২ ছক্কার সাহায্যে সাজানো ১২৫* রানের ইনিংসের সুবাদে তিনি এই অ্যাওয়ার্ড জেতেন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২৫ রানের বিনিময়ে ছয় উইকেট শিকার করে যুযবেন্দ্র চাহাল জেতেন বোলিং পারফরমেন্স অফ দ্য ইয়ারের অ্যাওয়ার্ড।

পাকিস্তানের শাদাব খান এবং ফখর জামানকে টপকে ডেব্যুটান্ট অফ দ্য ইয়ারের অ্যাওয়ার্ড জেতেন ভারতের চায়নাম্যান বোলার কুলদ্বীপ যাদব। তিনি ক্যারিয়ারের প্রথম বছরে ২২.১৮ বোলিং গড়ে ৪৩ উইকেট শিকার করেছেন। আফগানিস্তানের রশিদ খান অ্যাসোসিয়েট বোলিং পারফরমেন্স অফ দ্য ইয়ারের অ্যাওয়ার্ড জেতেন। তিনি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১৮ রানের বিনিময়ে সাত উইকেট শিকার করে এই অ্যাওয়ার্ড জেতেন।

স্কটল্যান্ডের কাইল কোয়েৎজার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১০১ বলে ১০৯ রানের ইনিংস খেলে অ্যাসোসিয়েট ব্যাটিং পারফরমেন্স অফ দ্য ইয়ারের অ্যাওয়ার্ড জেতেন। তার ইনিংসের উপর ভর করে প্রথম কোনো পূর্ণ সদস্য দলের বিপক্ষে জয় পেলো স্কটল্যান্ড। ২০১৭ সালের নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারতের ব্যাটসম্যান হারমানপ্রীত কৌর মাত্র ১১৫ বলে ১৭১* রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেছিলেন, যার সুবাদে তিনি উইমেনস ব্যাটিং পারফরমেন্স অফ দ্য ইয়ারের অ্যাওয়ার্ড জেতেন। ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে ৪৬ রানের বিনিময়ে ছয় উইকেট শিকার করে অ্যানিয়া শ্রাবসোল ইংল্যান্ডকে শিরোপা উপহার দেন। তার এই অসাধারণ বোলিং নৈপুণ্যে উইমেনস বোলিং পারফরমেন্স অফ দ্য ইয়ারের খেতাব জেতেন।

স্টিভ স্মিথ এবং বিরাট কোহলিকে টপকে ক্যাপ্টেন অফ দ্য ইয়ারের অ্যাওয়ার্ড জেতেন ইংল্যান্ড নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক হিদার নাইট। তিনি ইংল্যান্ড নারী ক্রিকেট দলকে শিরোপা জেতানোর পাশাপাশি ১৫ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়ে ১১টিতে জয় এনে দেন।

ফিচার ইমেজ- Twitter

Related Articles