• সাত মাস পর ক্রিকেটে ফিরছেন অস্ট্রেলিয়া নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মেগ ল্যানিং।
  • ভারত নারী ক্রিকেট দলের বিপক্ষে তিনটি ওয়ানডে এবং ভারত ও ইংল্যান্ড নারী ক্রিকেট দলের সাথে ত্রিদেশীয় টি-টুয়েন্টি সিরিজ খেলবে অস্ট্রেলিয়া নারী ক্রিকেট দল।
  • কাঁধের ইনজুরির কারণে ল্যানিং উইমেনস বিগ ব্যাশ এবং অ্যাশেজ সিরিজ মিস করেছেন।
  • গত বছর ভারতের বিপক্ষে নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে নিজের শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছিলেন ল্যানিং।

২০১৭ সালের ২০শে জুলাই নিজের শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচে ভারতের কাছে ৩৬ রানে পরাজিত হয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। ঐ ম্যাচে ল্যানিং নিজের নামের পাশে কোনো রান যোগ করতে ব্যর্থ হন।

ভারতের বিপক্ষে নিজের শেষ ম্যাচে শূন্য রানে ফিরে গিয়েছিলেন ল্যানিং; Source: Getty Images

ম্যাচ শুরুর আগে তিন হাজার ওয়ানডে রান থেকে মাত্র এক রান দূরে ছিলেন ল্যানিং। আগামী ১২ই মার্চ একই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে এক রান করলেই ১২তম নারী ক্রিকেটার হিসাবে ওয়ানডেতে তিন হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করবেন তিনি। এখন পর্যন্ত ৬৩টি ওয়ানডেতে ১১টি শতক এবং ১১টি অর্ধশতকের সাহায্যে ৫৪.৫২ ব্যাটিং গড়ে ২,৯৯৯ রান করেছেন ল্যানিং।

ল্যানিং কাঁধের ইনজুরির কারণে সাত মাস ক্রিকেটের বাইরে ছিলেন। ইনজুরি কাটিয়ে ফেরার পর তাকে অধিনায়ক নির্বাচিত করে দল ঘোষণা করে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড। ভারত নারী ক্রিকেট দলের বিপক্ষে তিনটি ওয়ানডে সামনে রেখে আজকে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে ভারত নারী ‘এ’ দলের মুখোমুখি হয় অস্ট্রেলিয়া নারী ক্রিকেট দল। নিজের ফিরতি ম্যাচে দশ বলে মাত্র এক রান করে সাজঘরে ফেরেন ল্যানিং।

২০১৭ সালে বেলিন্ডা ক্লার্ক অ্যাওয়ার্ড এবং বর্ষসেরা ঘরোয়া ক্রিকেটারের পুরস্কার জেতেন ল্যানিং; Source: Mark Metcalfe/Getty Images

‘দ্য মেগাস্টার’ মেগ ল্যানিং ২০১৪, ২০১৫ এবং ২০১৭ সালে বেলিন্ডা ক্লার্ক অ্যাওয়ার্ড জিতেছিলেন। গত মৌসুমে মাঠের বাইরে থাকার কারণে অ্যাওয়ার্ড হাতছাড়া হয়ে যায় দুর্দান্ত এই ব্যাটসম্যানের।

সাত মাস পর ক্রিকেটে ফেরা সম্পর্কে ল্যানিং বলেন, “আমার মনে হচ্ছে এটি যেন আমার প্রথম সফর।” তিনি আরও বলেন, “সত্যি বলতে কী, আমি সব ম্যাচের আগে কিছুটা অস্বস্তিতে থাকি। কিন্তু এখানে আসার পর থেকে পরিবেশটা অপরিচিত এবং ভূতুড়ে মনে হচ্ছে। আশা করি খুব দ্রুত এসব কাটিয়ে উঠতে পারবো।

ফিচার ইমেজ: Cricket Australia