• পাকিস্তান সুপার লিগে পেশোয়ার জালমির হয়ে ২৯ বলে দুটি চার এবং দুটি ছয়ের মারে ৩৯ রানের ইনিংস খেলেন তামিম ইকবাল।
  • দশম ব্যাটসম্যান হিসাবে এবং পঞ্চম বিদেশি ক্রিকেটার হিসাবে পিএসএলে চারশো রানের মাইলফলক অতিক্রম করেন তামিম।
  • ইসলামাবাদকে ৩৪ রানে হারিয়ে আসরের প্রথম জয় তুলে নেয় তার দল পেশোয়ার জালমি।

দুবাইতে গ্রুপ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের বিপক্ষে পেশোয়ার জালমির হয়ে ইনিংস উদ্বোধন করেন কামরান আকমাল এবং তামিম ইকবাল।

উদ্বোধনী উইকেট জুটিতে এই দুজন ৭.৩ ওভারে ৬৯ রান যোগ করেন। এর মধ্যে বেশি অবদান কামরান আকমলের। সামিত প্যাটেলের বলে ওয়ালটনের হাতে ক্যাচ দেওয়ার সময় তার নামের পাশে ছিলো ৩২ বলে সাতটি চার এবং তিনটি ছয়ের মারে ৫৩ রানের ঝোড়ো ইনিংস।

কামরান আকমল আউট হওয়ার পর জ্বলে ওঠেন তামিম ইকবালও। আন্দ্রে রাসেলের বলে শাদাব খানের হাতে ক্যাচ দেওয়ার সময় তার রানসংখ্যা ছিলো ২৯ বলে দুটি চার এবং সমান সংখ্যক ছয়ের মারে ৩৯ রান!

তামিম ইকবাল যখন সাজঘরে ফেরেন, তখন পেশোয়ারের রান ছিলো ১৩ ওভারে দুই উইকেটে ১২১। সেখান থেকে ডুয়াইন স্মিথ এবং মোহাম্মদ হাফিজের ৩০ রানের ইনিংসের উপর ভর করে ছয় উইকেটে ১৭৬ রান তোলে।

তামিম ইকবাল আজকের ৩৯ রানের ইনিংসের মধ্য দিয়ে পিএসএলের ইতিহাসে দশম ব্যাটসম্যান হিসাবে চারশো রান অতিক্রম করেন। এখন পর্যন্ত ১৩ ম্যাচে চারটি অর্ধশতকের সাহায্যে ৪১.১০ ব্যাটিং গড়ে ৪১১ রান করেছেন তিনি।

পিএসএলে নিজের অভিষেক ম্যাচে চার উইকেট শিকার করেন উমায়েদ আসিফ; Image Source: CB

পেশোয়ারের দেওয়া ১৭৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে উমায়েদ আসিফের বোলিং তোপের মুখে পড়ে ইসলামাবাদ। ৩৩ বছর বয়সী এই পেসার পিএসএলে নিজের অভিষেক ম্যাচের প্রথম দুই ওভারে চার উইকেট শিকার করে ইসলামাবাদের টপ অর্ডার গুড়িয়ে দেন।অখ্যাত লেগ স্পিনার ইবতিশাম শেখও তিন উইকেট শিকার করলে মাত্র ৭৩ রানে আট উইকেট হারায় ইসলামাবাদ। শেষদিকে ফাহিম আশরাফের ছয়টি চার এবং দুইটি ছয়ের মারে সাজানো অপরাজিত ৫৪* রানের ইনিংসটি হারের ব্যবধান কমায়। ম্যাচ সেরা উমায়েদ আসিফ ২৩ রানে চার উইকেট এবং ইবতিশাম শেখ ২০ রানে তিন উইকেট শিকার করলে নির্ধারিত ২০ ওভারে ইসলামাবাদ ইউনাইটেড নয় উইকেটে ১৪২ রান সংগ্রহ করে।

ফিচার ইমেজ- Pawan Singh/ The National