ইতিহাসের এই দিনে: শচীন টেন্ডুলকার এবং ক্রিস গেইলের রেকর্ড গড়া দুইশ

  • ২০১০ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ানডেতে দ্বিশতক হাঁকান শচীন টেন্ডুলকার।
  • সাঈদ আনোয়ার ও চার্লস কভেন্ট্রির ১৯৪ রানের ইনিংস টপকে ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের ইনিংস খেলার রেকর্ড গড়েন টেন্ডুলকার।
  • ২০১৫ সালের ২৪শে ফেব্রুয়ারি টেন্ডুলকার দ্বিশতক হাঁকানোর পাঁচ বছর পর একই দিনে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২১৫ রানের ইনিংস খেলেন ক্রিস গেইল।

১৯৯৭ সালে চেন্নাইতে ভারতের বিপক্ষে যখন সাঈদ আনোয়ার ১৯৪ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তখন শচীন টেন্ডুলকার খুব কাছ থেকে দেখেছিলেন। সেই ম্যাচে মাত্র চার রান করে সাজঘরে ফিরতে হয়েছিলো ভারতের ক্রিকেটের ঈশ্বরকে।

১৩ বছর পর সাঈদ আনোয়ারের রেকর্ড ভেঙে ওয়ানডে ইতিহাসের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসাবে দ্বিশতক হাঁকান ৩৬ বছর বয়সী শচীন টেন্ডুলকার। এর আগে ২০০৯ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে ১৯৪* রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে সাঈদ আনোয়ারের রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছিলেন জিম্বাবুয়ের চার্লস কভেন্ট্রি।

২০০৯ সালে শচীন টেন্ডুলকারও দুবার খুব কাছে গিয়েও সাঈদ আনোয়ারের রেকর্ড ভাঙতে পারেননি। ক্রাইস্টচার্চে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১৬৩* রান করার পর চোট নিয়ে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন এবং একই বছর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১৭৫ রান করে আউট হন।

ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম দ্বিশতক হাঁকান শচীন টেন্ডুলকার; Image Source: Getty Images

রেকর্ডটি হয়তো শচীনের জন্যই তোলা ছিলো। ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে ২,৯৬২ তম ম্যাচে প্রথম দ্বিশতকের দেখা পায় ক্রিকেট বিশ্ব। ২০১০ সালের ২৪শে ফেব্রুয়ারি গোয়ালিয়রে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১৪৭ বলে ২৫টি চার এবং তিনটি ছয়ের মারে অপরাজিত ২০০* রানের ইনিংস খেলেন। তিনি ৪৫ তম ওভারেই ১৯১ রানে পৌঁছে গিয়েছিলেন। শেষ ৩০ বলের মধ্যে মাত্র ৯ বল মোকাবেলা করার সুযোগ পেয়েছিলেন শচীন। কিছুটা বিলম্ব হলেও শচীন তার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে যান। চার্লস ল্যাঙ্গেভেল্টের অফ স্ট্যাম্পের বেশ বাইরের বল পয়েন্টের দিকে খেলে দ্রুততার সাথে প্রান্ত বদল করে বিশ্বরেকর্ড গড়েন শচীন রমেশ টেন্ডুলকার।

শচীনের দুর্দান্ত দ্বিশতকের উপর ভর করে ভারত তিন উইকেটে ৪০১ রান সংগ্রহ করে। জবাবে নিয়মিত বিরতিতে উইকেটে হারিয়ে ২৪৮ রানে থেমে যায় দক্ষিণ আফ্রিকার। এবি ডি ভিলিয়ার্সের অপরাজিত ১১৪* রানের ইনিংসের সত্ত্বেও ১৫৩ রানের বড় ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিলো সফরকারীরা।

শচীন টেন্ডুলকার দ্বিশতক হাঁকানোর পর ওয়ানডে ক্রিকেটে পরবর্তী আট বছরে ছয়টি দ্বিশতক হাঁকিয়েছে ব্যাটসম্যানরা, যার মধ্যে রোহিত শর্মা একাই তিনটি এবং বীরেন্দ্র শেবাগ, ক্রিস গেইল ও মার্টিন গাপটিল একটি করে দ্বিশতক হাঁকান। হয়তো ওয়ানডে ক্রিকেটের সিংহভাগ রেকর্ডের মালিক শচীনের জন্যই অপেক্ষায় ছিলো অধরা এই মাইলফলকটি।

২০১৫ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি ওয়েস্ট ইন্ডিজের হার্ড-হিটার ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বকাপ ক্রিকেটে দ্বিশতক হাঁকান। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় বলেই ডোয়াইন স্মিথের উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এরপর দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ক্রিস গেইল ও মারলন স্যামুয়েলস ৩৭২ রান যোগ করেন।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বিশ্বকাপ ইতিহাসের প্রথম দ্বিশতক হাঁকান ক্রিস গেইল; Image Source: Getty Images

ইনিংসের শেষ বলে আউট হওয়ার আগে ক্রিস গেইল বিশ্বকাপ ক্রিকেটে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে দ্বিশতক হাঁকান। ১০৫ বলে শতক হাঁকানোর পর ১৫০ রানে পৌঁছুতে খেললেন মাত্র ২১ বল। এরপর আরও ভয়ংকর হয়ে উঠে মাত্র ১২ বলে পরবর্তী ৫০ রান পূর্ণ করে দ্বিশতক হাঁকান তিনি। শেষপর্যন্ত ১৪৭ বলে ১০টি চার এবং ১৬টি ছয়ের মারে ২১৫ রান করে থামেন।

২০১০ সালের আজকের এই দিনে ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে দ্বিশতক হাঁকান শচীন টেন্ডুলকার। এবং ঠিক পাঁচ বছর পর বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসাবে দ্বিশতক হাঁকান ক্রিস গেইল। দুজনেই তাদের ইনিংসে ১৪৭ বল মোকাবেলা করেছিলেন!

ফিচার ইমেজ- Getty Images

Related Articles