আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব: ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে প্রস্ততি সেরে নিলো আফগানিস্তান

  • ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে ২৯ রানে হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে।
  • আফগানিস্তানের পেসার দাওলাত জাদ্রান হ্যাটট্রিক করেন।
  • আয়ারল্যান্ড বনাম জিম্বাবুয়ের প্রস্তুতি ম্যাচ বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়েছে।
  • হংকংকে আট উইকেটে হারিয়েছে নেদারল্যান্ড।
  • সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে পাঁচ উইকেটের জয় পেয়েছে নেপাল।
  • পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে সাত উইকেটের সহজ জয় তুলে নিয়েছে স্কটল্যান্ড।

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ বাছাইপর্বকে সামনে রেখে প্রস্তুতি ম্যাচে মাঠে নামে টুর্নামেন্টের ১০টি দল। প্রস্তুতি ম্যাচে জিম্বাবুয়ে বনাম আয়ারল্যান্ড, হংকং বনাম নেদারল্যান্ড, পাপুয়া নিউ গিনি বনাম স্কটল্যান্ড, নেপাল বনাম সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং আফগানিস্তান বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ মুখোমুখি হয়। দিনের পাঁচটি ম্যাচেই বৃষ্টি বাধা সৃষ্টি করে। বুলাওয়েতে বেরসিক বৃষ্টি আয়ারল্যান্ড এবং জিম্বাবুয়ের ম্যাচটি মাঠে গড়ানোর সুযোগ দেয়নি।

খুব দ্রুত ক্রিকেট বিশ্বে নিজেদের স্থান পাকাপোক্ত করা আফগানিস্তান বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে ২৯ রানে পরাজিত করেছে। হারারেতে টসে জিতে আফগানিস্তানকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ব্যাটিংয়ে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসারদের তোপের মুখে পড়ে আফগানিস্তানের ব্যাটসম্যানরা।

শেলডন কটরেল, জ্যাসন হোল্ডার, কেসরিক উইলিয়ামসের আঁটসাঁট বোলিংয়ে মাত্র ৭১ রান তুলতেই আট উইকেট হারিয়ে বসে আফগানিস্তান। সেখান থেকে নবম উইকেট জুটিতে সামিউল্লাহ শেনওয়ারি এবং গুলবাদিন নাইব ৯১ রানের জুটি গড়ে দলকে লড়াই করার মতো পুঁজি এনে দেন। তাদের সম্মান বাঁচানো ইনিংসের উপর ভর করে ৩৫ ওভারে ৯ উইকেটে ১৬৩ রান সংগ্রহ করে আফগানিস্তান।

Source: ICC

ক্রিস গেইল, এভিন লুইস, স্যামুয়েলসদের সামনে বৃষ্টি আইনে জয়ের জন্য ৩৫ ওভারে ১৪০ রান নির্ধারণ করা হয়। ১৩.২ ওভারে দুই উইকেটে ৮০ রান সংগ্রহ করে জয়ের পথে ছিলো উইন্ডিজ। সেখান থেকে আর মাত্র ৩০ রান যোগ করে ১১০ রানে গুটিয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আফগান পেসার দাওলাত জাদ্রান হ্যাটট্রিক সহ চার উইকেট শিকার করে উইন্ডিজদের মিডল অর্ডার গুড়িয়ে দেন।

আরেক প্রস্তুতি ম্যাচে হংকংয়ের বিপক্ষে ৬১ বল ও আট উইকেট হাতে রেখে জয় তুলে নেয় নেদারল্যান্ড। প্রথমে ব্যাট করে অধিনায়ক বাবর হায়াতে ৮৫ রানের ইনিংসের উপর ভর করে ১৫৭ রান সংগ্রহ করে হংকং। নেদারল্যান্ডের হয়ে ম্যাকেরেন নয় ওভার বল করে মাত্র ১৭ রানের বিনিময়ে চার উইকেট শিকার করেন।

বৃষ্টি আইনে জয়ের জন্য নেদারল্যান্ডকে ৪৬ ওভারে ১৫৩ রানের লক্ষ্য দেওয়া হয়। ব্যারেসি, ও’দাউদ এবং কুপারের ব্যাটে চড়ে সহজ জয় পায় নেদারল্যান্ড। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হওয়া দ্বিতীয় বিভাগ টুর্নামেন্টের দুই ফাইনালিস্ট প্রস্তুতি ম্যাচে আবারও নিজেদের মধ্যে মোকাবেলা করে। দ্বিতীয় বিভাগ টুর্নামেন্টে সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে শিরোপা হারালেও প্রস্তুতি ম্যাচে পাঁচ উইকেটের জয় পায় নেপাল।

বৃষ্টি বিঘ্নিত ২৯ ওভারের ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে বান্দারি এবং কারানের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাত ১৭১ রানে গুটিয়ে যায়। বান্দারি চার উইকেট এবং কারান তিন উইকেট শিকার করেন। দিপেন্দ্র সিং আইরি এবং শারদ ভেশাওকারের ৪১ রানের দুটি ইনিংসের পাশাপাশি আরিফ শেখের ২৩* রানের কার্যকরী ইনিংসের উপর ভর করে পাঁচ উইকেটের জয় পায় নেপাল।

বুলাওয়ের অ্যাথলেটিক ক্লাব মাঠে পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে দিনের একমাত্র শতক হাঁকান স্কটল্যান্ডের ম্যাথিউ ক্রস। টসে হেরে প্রথম ব্যাট করতে নেমে ১৯৭ রানে গুটিয়ে যায় পাপুয়া নিউ গিনি। ১৯৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিলেন অধিনায়ক কোয়েৎজার। মাত্র ২৩ বলে ৪৬ রান করে কিলার শিকারে পরিণত হন। কোয়েৎজার ফিরে গেলেও দলকে জয়ের পথে রাখেন ম্যাথিউ ক্রস। তিনি ১২৩ বলে চারটি চার এবং পাঁচটি ছয়ের মারে ১০১* রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন। তার ইনিংসের উপর ভর করে ৮০ বল এবং সাত উইকেট হাতে রেখে জয় পায় স্কটল্যান্ড।

Featured Image – ICC

Related Articles