এক বছর কারাভোগের পর মুক্তি পেলেন স্যামসাংয়ের ভাইস চেয়ারম্যান

  • এক বছর সাজা ভোগের পর মুক্তি পেলেন প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাংয়ের উত্তরাধিকার ও ভাইস চেয়ারম্যান লি জি ইয়ং।
  • দক্ষিণ কোরিয়ার উচ্চ আদালত তার পাঁচ বছরের সাজা অর্ধেক কমিয়ে আড়াই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে।
  • তবে চার বছরের জন্য তার সাজাভোগ স্থগিত রেখেছে আদালত।
  • একইসাথে তার বিরুদ্ধে আনা দুর্নীতি এবং অর্থ আত্মসাতের অভিযোগও খারিজ করা হয়েছে।
  • একজন বিচারকের অনুমোদন ব্যতিরেকে তার জন্য দক্ষিণ কোরিয়ার বাইরে ভ্রমণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এই রায়ের ফলে ইয়ংকে আর জেলে থাকতে হচ্ছে না, কিন্তু তিনি চার বছর থাকবেন কড়া নজরদারির মধ্যে। এই চার বছরের মধ্যে যদি তিনি কোনো নীতিমালা লঙ্ঘন করেন, তাহলে পুনরায় তার সাজা কার্যকর করা হবে

গত বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে আটক অবস্থায় ছিলেন বিশ্বের অন্যতম টেক জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটির উত্তরাধিকার ইয়ং। ৪৯ বছর বয়সী ইয়ং স্যামসাংয়ের ভাইস চেয়ারম্যান পদে নিযুক্ত হন ২০১২ সালে।

Source : The Australian

তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগে বলা হয়, সরকারি সুযোগ-সুবিধা পাবার উদ্দেশ্যে এবং স্যামসাং ইলেকট্রনিকসে নিজের ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করার জন্য কোরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট পার্ক জিউন-হাইয়ের বান্ধবী চোই সুন সিলকে ঘুষ প্রদান করেন ইয়ং। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ সহ আরো কিছু অভিযোগ আনা হয়। এই ঘটনার পরপরই মার্চ মাসে পার্ককে অভিশংসিত করা হয়।

২০১৪ সালে ফোর্বসের পৃথিবীর সবচেয়ে ক্ষমতাধর ব্যক্তিদের তালিকায় তিনি ছিলেন ৩৫তম স্থানে। তার বাবা লি কুন হি এর পাশাপাশি কোরিয়ার প্রভাবশালীদের তালিকাতেও ছিল তার নাম।

এদিকে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা তার বিরুদ্ধে ১২ বছরের কারাদণ্ডের আবেদন করেন। কিন্তু রায় পক্ষে না যাওয়াতে তারা আবারও আপিল করবেন বলে জানা গেছে।

ফিচার ইমেজ: Jean Chung/Bloomberg

 

Related Articles