মিথ্যাচার করলে অভিশংসিত হতে পারেন ট্রাম্প: কেন স্টার

  • রবার্ট মুলারকে পদচ্যুত করার চেষ্টার রিপোর্টকে ‘ভুয়া সংবাদ’ দাবি করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
  • এ ব্যাপারে মিথ্যা বললে তা প্রেসিডেন্ট অভিশংসনের ক্ষেত্র হিসেবে বিবেচিত হতে পারে বলে জানিয়েছেন ইন্ডিপেনডেন্ট কাউন্সেলর কেন স্টার।
  • কেন স্টার এর আগে মনিকা লিউনিস্কির সাথে বিল ক্লিনটনের সম্পর্কের মিথ্যা বিবৃতির তদন্ত করেন যা প্রেসিডেন্টের অভিশংসনের ক্ষেত্র হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছিল।

কেন স্টার;  Source: Jimmy Sengenberger

রবার্ট মুলার ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ নিয়ে অনুসন্ধান করছেন। এছাড়াও ট্রাম্পের এমন কিছু কাজ যা সংঘটিত সুবিচারে বিঘ্ন ঘটাতে পারে, সেগুলোর ব্যাপারেও তিনি অনুসন্ধান করছেন।

কেন স্টার বলেন, “আমেরিকার জনগণের কাছে মিথ্যা বলা গুরুতর ব্যাপার, যেটি অনুসন্ধান করা দরকার। আমি আমেরিকার জনগণের কাছে মিথ্যা বলা পুরোপুরিভাবেই খুব গুরুতর ব্যাপার বলে মনে করি।

নিউ ইয়র্ক টাইমস সহ আরও কিছু গণমাধ্যম প্রকাশ করে যে, ২০১৭ সালে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মুলারকে পদচ্যুত করতে হোয়াইট হাউস কাউন্সেল ডোনাল্ড ম্যাকগানকে আদেশ করেন। খবরে বলা হয়, ম্যাকগান বলেছেন এ আদেশ মেনে নেওয়ার চেয়ে তিনি নিজেই পদত্যাগ করাকে শ্রেয় মনে করবেন। তার মতে, এটি ট্রাম্পের জন্য বিধ্বংসী হতে পারে।

রবার্ট মুলার; Source: Vox

ট্রাম্প এই প্রতিবেদনকে ‘ভুয়া খবর’ বলে জনসম্মুখে ব্যাপারটি অস্বীকার করেন। গত জুন মাস থেকেই তিনি মুলারকে পদচ্যুত করার কথা অস্বীকার করে আসছেন। হোয়াইট হাউজ কর্তৃপক্ষও বারবার দাবি করে আসছে, প্রেসিডেন্ট মুলারকে পদচ্যুত করার ব্যাপারে কিছু বলেননি।

এ ব্যাপারে গত আগস্ট মাসে ট্রাম্প বলেন, মুলারকে পদচ্যুত করার ব্যাপারে তিনি গণমাধ্যমের কাছেই খবর পাচ্ছেন। তিনি আসলে কাউকে পদচ্যুত করবেন না।

রবিবারে কিছু রিপাবলিকান সদস্য জানান, মুলারকে পদচ্যুত করা সংক্রান্ত ট্রাম্পের এ বক্তব্য খুব  গুরুতর এবং এ ব্যাপারে দ্রুত কংগ্রেসের পদক্ষেপ গ্রহণ করা দরকার।

ফিচার ইমেজ: Business Insider

Related Articles