তুর্কি সেনাদের দখলে আফরিন

  • তুর্কি সেনাবাহিনী কুর্দি নিয়ন্ত্রিত আফরিন শহরের দখল নিয়ে নিয়েছে বলে জানিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান।
  • গতকাল সকাল সাড়ে আটটার দিকে তুর্কি সেনাদল আর ফ্রি সিরিয়ান আর্মির যৌথ আক্রমণে পিছু হটে কুর্দি সেনাদল ওয়াইপিজি

এরদোগান অবশ্য এটাও স্বীকার করছেন যে, এখনো তুর্কি সেনারা পুরো শহরের নিয়ন্ত্রণ নিতে পারেনি। ছোটখাটো কুর্দি সেনাদল শহরের বিভিন্ন জায়গায় লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। উত্তর তুরস্কের গ্যালিপলি উপদ্বীপের কাছে কানাকলে শহরে এক অনুষ্ঠানে রিসেপ এরদোগান এসব কথা বলেন। মার্কিন বার্তা সংস্থা সিএনএন জানিয়েছে এই খবর।

চলতি বছরের ২০ জানুয়ারি সিরীয় শহর আফরিন এবং এর আশেপাশের অঞ্চলকে লক্ষ্য করে তুর্কি সেনাবাহিনী শুরু করে ‘অপারেশন অলিভ ব্রাঞ্চ’। প্রায় দুই মাস ধরে চলা এই অভিযানের উদ্দেশ্য হচ্ছে আফরিন সহ তুর্কি সীমান্তবর্তী অঞ্চল থেকে কুর্দি সেনাদলকে হটিয়ে দেওয়া। তুরস্কের সরকারের ধারণা, ওয়াইপিজি আর তুরস্কের বিচ্ছিন্নতাবাদী কুর্দি সংগঠন পিকেকে এর মধ্যে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ আছে।

প্রায় দুই মাস ধরে যুদ্ধ চলছে আফরিনে; source: rt.com

আফরিন শহরে প্রায় দুই মাসব্যাপী তুর্কি অভিযানের ফলে প্রায় পনের হাজার মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। মারা গেছেন কয়েকশ বেসামরিক ব্যক্তি। তবে এরপরেও আফরিন অঞ্চলে যুদ্ধ সহসাই থামবে বলে মনে হচ্ছে না। কুর্দিপন্থী আফরিন এক্সিকিউটিভ কাউন্সিলের অন্যতম বড়কর্তা ওথমান শেইখ এরই মধ্যে পাল্টা জবাব দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন

ফিচার ইমেজ: neweurope.eu

Related Articles